৯ ব্যক্তির সন্ধানে আইনশৃংখলা বাহিনী

0
221

58_49932_21014_1470175313ঢাকা: নিখোঁজ নয় ব্যক্তির সন্ধানে নেমেছে আইনশৃংখলা বাহিনী। তাদের মধ্যে সায়মা আক্তার মুক্তা, রাবেয়া আক্তার টুম্পা ও রিদিতা রাহিলা নামে তিন নারী আছেন। রিদিতার স্বামী একেএম তুরকিউর রহমানের নামও এ তালিকায় আছে। এই দম্পতি সিরিয়ায় চলে গেছেন বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে।

আইনশৃংখলা বাহিনীর নতুন তালিকায় স্থান পাওয়া ওই নয় ব্যক্তির ছবি, পাসপোর্ট নম্বর ও তাদের স্থায়ী ঠিকানা বিভিন্ন সংস্থার কাছে পাঠানো হয়েছে। নিখোঁজদের মধ্যে আরও আছেন- মো. রিদওয়ান ইসলাম তুহিন, আবদুর রহমান মাসুদ, ডা. মো. আরাফাত-আল আজা ওরফে আবু খালিদ আল বাঙালি ওরফে ডা. তুষার, তাহমিদ রহমান সাফি ওরফে আবু ইছা আল বাঙালি ও সাইমুন হাছিব মোনাজ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নতুন তালিকায় থাকা ব্যক্তিরা ইতিমধ্যে সিরিয়া ও ইরাকভিত্তিক একটি উগ্রবাদী সংগঠনের হয়ে কাজ করছেন। তারা দেড়-দু’বছর আগেই দেশ ছেড়ে চলে গেছেন।

নিখোঁজদের মধ্যে মো. রিদওয়ান ইসলাম তুহিনের পাসপোর্ট নম্বর এএফ ৬১৯৮৪২৫। বাবার নাম মৃত তৌহিদুল ইসলাম। মায়ের নাম কুলসুম আক্তার (কুসুম)। স্থায়ী ঠিকানা গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার কেওয়াবাজার (পশ্চিম খণ্ড) এলাকায়।

নিখোঁজ আবদুর রহমান মাসুদের পাসপোর্ট নম্বর এএ ৯৩৯৯৮০৬। তার বাবার নাম মো. আবদুল মালেক। ঢাকার আশুলিয়া থানার টুঙ্গাবাড়ির ২ নম্বর সড়কের ৩ নম্বর বাড়ি তাদের। ডা. মো. আরাফাত আল আজাদ ওরফে আবু খালিদ আল বাঙালি ওরফে ডাক্তার তুষারের বাবা মরহুম ওয়াসিকুর আজাদ। রাজধানীর বারিধারা ডিওএইচএসে তাদের বাসা।

নিখোঁজ তাহমিদ রহমান সাফির ছদ্মনাম আবু ইছা আল বাঙালি। তার বাবা সাবেক নির্বাচন কমিশনার মো. শফিউর রহমান। মা নাসিতা রহমান। বাসা রাজধানীর নিকুঞ্জ আবাসিক এলাকা-১-এর ৮/এ, সড়কের ১ নম্বর বাড়ি। তাহমিদ গ্রামীণফোনের সাবেক কর্মকর্তা। তিনি ক্লোজআপ ওয়ান তারকা। সম্প্রতি গুলশান হামলার পর বাংলাদেশে অব্যাহতভাবে হামলা চালানো হবে বলে আইএসের পক্ষ থেকে তাদের আমাক নিউজএজেন্সির সাইটে যে হুমকি দেয়া হয়েছিল, সেখানে তাহমিদ জোরালো বক্তব্য রাখে। তিনি তুরস্কে হানিমুনে যাওয়ার কথা বলে নিখোঁজ হন।

সাইমুন হাছিব মোনাজের বাবার নাম মোহাম্মদ আবু মুসা। তিনি অবসরপ্রাপ্ত সচিব। মায়ের নাম হোসনে আরা জয়েস। সাইমুনের স্ত্রীর নাম মিশু। ঢাকার বনানী থানার ২৩ নম্বর সড়কের ২২ নম্বর বাসার এ/৩ ফ্ল্যাটের বাসিন্দা তিনি।

একেএম তুরকিউর রহমানের পাসপোর্ট নম্বর এএ ৪৩৬৯৭৮৩। তার স্ত্রীর নাম নাম রিদিতা রাহিলা ইকবালা। মেয়ের নাম রুমাইসা বিনতে তাকি (এক বছর)। তুরকিউরের শ্বশুর কর্নেল (অব.) মোহাম্মদ ইকবাল পিএসসি। তুরকিউর অস্ট্রেলিয়ায় লেখাপড়া করার সময় উগ্রবাদে জড়িয়ে পড়েন। পরে বাংলাদেশে এসে বিয়ে করেন। বিয়ের পর সপরিবারে সিরিয়ায় গমন করেন। তার স্ত্রী ও কন্যা ওমরাহ পালন করে ২০১৫ সালের ১৩ এপ্রিল তুরস্কে গমন করেন। তুরকিউর স্ত্রীর রিদিতার পাসপোর্ট নম্বর এবি ৬৫৫৫৮০০। মেয়ে রুমাইসার পাসপোর্ট নম্বর বিসি ০৭১৯১৮২।

নিখোঁজ সায়মা আক্তার মুক্তার বাবার নাম সোলায়মান শেখ। পাসপোর্ট নম্বর এক্স ০১৪৮২০০। স্বামী শফিকুল হক সুজন ওরফে সাইফুল। বর্তমান ঠিকানা খুলনার ইকবাল নগরে (স্কুলের দক্ষিণ পাশে)। তার স্থায়ী ঠিকানা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া থানার বাঁশবাড়িয়া পাকুড়তিয়া গ্রাম। তার ৬ বছরের ছেলে আমান শেখ ও ৪ বছরের ছেলে রোমানকে নিয়ে ২০১৪ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে পালিয়ে যান। ওই সময় তিনি গর্ভবতী ছিলেন। সিরিয়াতে যাওয়ার কিছু দিন পর ওসমান নামে তার এক ছেলে হয়েছে। বর্তমানে তারা সিরিয়াতে সিফুল হক সুজনের (ড. মো. আতাউল সবুজের ভাই) বাসায় অবস্থান করছেন।

সোলায়মান শেখের আরেক মেয়ে রাবেয়া আক্তার টুম্পার বয়স (৩২)। তার পাসপোর্ট নম্বর এডি ২৯২২৮৪৬। তার স্বামীর নাম শরিফুল ইসলাম ইমন। তার বাসা মিরপুর বুদ্ধিজীবী গোরস্তানের পাশে। তাদের স্থায়ী ঠিকানা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার বাঁশবাড়িয়ার পাকুড়তিয়ায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএমপির উপকমিশনার মাসুদুর রহমান বলেন, তাদের বিষয়ে খোঁজখবর নেয়া অব্যাহত আছে।