৯ পৌরসভায় নির্বাচন, সাতটিতেই মেয়র পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জয়ী

0
230

234110voteপৌরসভা নির্বাচনে সাতটি জেলার নয়টি পৌরসভার মধ্যে সাতটিতেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। তারা যেসব পৌরসভায় জয়ী হন সেগুলো হলো- নরসিংদীর ঘোড়াশাল, নোয়াখালী সদর ও সেনবাগ, লক্ষ্মীপুর সদর, ব্রাহ্মবাড়িয়ার কসবা, কক্সবাজারের টেকনাফ এবং ফেনীর ছাগলনাইয়া। এ ছাড়াও নরসিংদীর রায়পুরা ও খাগড়াছড়ির রামগড়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন।

ছাগলনাইয়া (ফেনী): ছাগলনাইয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মো. মোস্তফা নৌকা প্রতীক নিয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ১৭ হাজার ৫৭৪ ভোট। বিএনপির মো. আলমগীর পেয়েছেন ৭৬৪ ভোট।

নোয়াখালী:  নোয়াখালী সদর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সহিদউল্যা খান সোহেল নৌকা মার্কায় ২৮ হাজার ৪৩২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রার্থী বিএনপির হারুনুর রশিদ আজাদ পান ৫ হাজার ৯৯৮ ভোট।

অপরদিকে নোয়াখালীর সেনবাগ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আবু জাফর টিপু ৭৭১ ভোটের ব্যবধানে মেয়র পদে জয়ী হয়েছেন। নৌকা প্রতীকে তিনি ৩ হাজার ৮৯০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবু নাছের প্রকাশ ভিপি দুলাল পেয়েছেন ৩ হাজার ১১৯ ভোট।

লক্ষ্মীপুর:  লক্ষ্মীপুরে পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এম এ তাহের বিজয়ী হয়েছেন। বুধবার সন্ধ্যায় জেলা রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. সাজ্জাদুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কসবা:  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. এমরান উদ্দিন জুয়েল ১৮ হাজার ২৭০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা বিএনপি সভাপতি মুহাম্মদ ইলিয়াস পেয়েছেন ১ হাজার ২৯৯ ভোট।

টেকনাফ (কক্সবাজার):  টেকনাফ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে স্থানীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির চাচা আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাজী মোহাম্মদ ইসলাম ৯ হাজার ৬০৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এসএম ফারুক বাবুল ৪৬৮ ভোট পান।

খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ির রামগড় পৌরসভা নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বিদ্রোহী প্রার্থী কাজী মোহাম্মদ শাহজাহান ওরফে কাজী রিপন ৫ হাজার ২৪২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্ব ত্রিপুরা পেয়েছেন ৪ হাজার ২৯৩ ভোট। বিএনপি প্রার্থী হাফেজ আহম্মেদ ভুইয়া ২ হাজার ৪০৩ ভোট পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন।

নরসিংদী:  নরসিংদীর ঘোড়াশাল পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মো. শরীফুল হক শরীফ ৩৮ হাজার ৭৯৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ৯৯ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে নরসিংদীর রায়পুরা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জামাল মোল্লা ৮ হাজার ৯৪১ ভোট পেয়ে মেয়র পদে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী বিএনপির আবদুল কুদ্দুস পেয়েছেন ৪ হাজার ৫৫১ ভোট।