’৭৫ এ যা অবশিষ্ট ছিল, ২১ আগস্টে তা ঘটাতে চেয়েছে’

0
7

ঢাকা: ৭৫ এ যা অবশিষ্ট – ২০০৪ সালের ২১ আগস্টে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা হালানো হয়। এতে আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভি রহমানসহ প্রাণ হারান ২৪ জন। অল্পের জন্য বেঁচে যান শেখ হাসিনা। এ ঘটনায় দায়ের হওয়া দুই মামলার দীর্ঘ প্রায় ১৪ বছর পর বিচার প্রক্রিয়া শেষে আজ রায় হল। সর্বমহলের মতো তারকাদেরও রয়েছে এ নিয়ে প্রতিক্রিয়া। তাদের কয়েকজনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হল।

নায়ক ফারুক বলেন,‘ রাজনীতি মানে কি বিরোধী দলের ওপর পৈশাচিক আক্রমণ? সরকারি ও বিরোধী দলের মধ্যে শত বিরোধ থাকবে, তাই বলে নেতৃত্বশূন্য করার চেষ্টা চালানো হবে? নূন্যতম মানবিকতা না থাকলে যা হয়। যে রায়ই হয়েছে, তাতে আমি খুশি। তবে এর মূল হোতা কারা। কাদের ইন্দনে সাহস পেয়েছে এমন নারকীয় হত্যাকান্ড ঘটাতে। সেই সব পালাতক আসামীদের ধরে এনে বিচার করতে হবে। বিএনপি যে বলবে তারা কিছু জানে না। তারা কীভাবে জানে না? এটা আমার প্রশ্ন। এটা তখনকার সরকারের একটা স্টেপ ছিল। এটা সাধারণ মানুষও জানে। ৭৫ এ ১৫ আগস্ট যতটুকু অবশিষ্ট ছিল, তা ২১ আগস্ট ঘটাতে চেয়েছে। স্বাধীনতার পক্ষের দলকে নিশ্চিহ্ন করার যে নীল নকশা। আমার মনে হয় এখানে বিদেশীদেরও ইন্দন ছিল।’

সোহেল রানা বলেন,‘ আমি বেশি কিছু বলবো না। বলবো এটা দায়মুক্তির বিচার হয়েছে। এই রায়ে বাংলাদেশের মানুষ আশ্বস্ত হয়েছে যে কোন অপরাধের জন্য আপনার আজ বা কাল বিচারের সম্মুখীন হতেই হবে।‘

তারিন বলেন,‘আদালত দীর্ঘদিন বিচার-বিশ্লেষণ করে এ রায় দিয়েছে। এটা অবশ্যই খুশির খবর। এই হামলা ছিল ১৫ আগষ্ট হত্যাকান্ডের পুনরাবৃত্তি। বঙ্গবন্ধুকে যেভাবে ঘাতকরা পরিবারসহ হত্যা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তেমনি তার দলের নেতৃবৃন্দসহ হত্যা করার চেষ্টা। বাংলাদেশের ইতিহাসে কলঙ্কিক বর্বর এই হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত সকলের ফাঁসি দিয়ে আদালতের দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হত, যাতে ভবিষ্যতে এমনটা আর না ঘটে। আপনাকে আমার খারাপ লাগতেই পারে। সেজন্য আপনাকে দুটা কটু কথা শোনাতে পারি। আপনার বিরুদ্ধে সভা সমাবেশ করতে পারি। কিন্তু নিশ্চিন্হ করে দেয়া মানে কী? ’

অভিনেত্রী সুইটি বলেন,‘ ১৯৭১ সালের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হচ্ছে। জাতির পিতা হত্যার বিচার হয়েছে। এবার হলো জাতির পিতার কন্যা আমাদের প্রানপ্রিয় নেত্রীর উপর হামলাকারীর বিচার। আওয়ামী সরকার এটা প্রমাণ করেছে। আপনি যতবড়ই ক্ষমতাশালী হন না কেন। অপরাধী আপনার বিচার পেতেই হবে। ওই হামলায় আহতরা এখনো যন্ত্রণা ভোগ করছে। এগুলো আসলে একটা সভ্য দেশে ঘটতে পারে না। যা ঘটেছিল তা বর্বর, নির্মম। যে শাস্তি হয়েছে তাতে আমি পুরোটা খুশি নই। হোতাদেরও আইনের আওতায় এনে দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here