১৬ জেলায় ৩৮ আসনের সীমানা পরিবর্তন, দাবি-আপত্তির শেষ সময় ১ এপ্রিল

0
38

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্বিন্যাসের খসড়া প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এতে ১৬টি জেলার ৩৮টি আসনের সীমানায় পরিবর্তন আনা হয়েছে। সবচেয়ে বড় রদবদল ঘটেছে ঢাকা জেলার পাঁচটি ও কুমিল্লা জেলার চারটি আসনে। এ ছাড়া সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জ উপজেলাকে অখণ্ডিত রেখে শ্যামনগরের সঙ্গে যুক্ত করে একটি আসন করা হয়েছে।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে গতকাল বুধবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে. এম. নুরুল হুদার সভাপতিত্বে কমিশন সভায় খসড়া সীমানা অনুমোদনের পর গেজেট প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত গেজেটের ওপর আগামী ১ এপ্রিল বিকেল ৫টার মধ্যে সংক্ষুব্ধ ব্যক্তিদের কাছ থেকে দাবি-আপত্তি আহ্বান করা হয়েছে। দাবি-আপত্তি নিষ্পত্তি শেষে আগামী ৩০ এপ্রিল চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের কথা জানিয়েছে ইসি কার্যালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ।

ইসি প্রকাশিত গেজেটে বলা হয়েছে, সীমানা পুনর্নির্ধারণের ক্ষেত্রে ছয়টি বিষয় বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে- প্রতি জেলার বিদ্যমান মোট আসনসংখ্যা অপরিবর্তিত রাখা; প্রশাসনিক ইউনিট, বিশেষ করে উপজেলা এবং সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড যথাসম্ভব অখণ্ড রাখা; ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌর এলাকার ওয়ার্ড একাধিক আসনে বিভাজন না করা; নতুন প্রশাসনিক এলাকায় অন্তর্ভুক্ত করা; বিদ্যমান সীমানায় বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ছিটমহল বিনিময়ের কারণে নতুন সীমানা নির্ধারণ করা এবং ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থা যথাযথ বিবেচনা করা।

তবে ইসি প্রকাশিত খসড়া সীমানার তালিকায় ৩০টির মতো উপজেলা এখনও খণ্ডিত অবস্থায় একাধিক আসনে রয়েছে। এ বিষয়ে কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বাস্তবতা বিবেচনায় এগুলো একত্র করা সম্ভব হয়নি।

ঢাকার পাঁচটি ও কুমিল্লার চারটি আসনে বড় রদবদল :ইসির প্রকাশিত তালিকায় ঢাকা জেলার ২০টি আসন অপরিবর্তিত রাখা হলেও কেরানীগঞ্জ উপজেলাকে অখণ্ডিত রেখে একটি আসন এবং সাভার উপজেলাকে দুটি আসনে বিভক্ত করা হয়েছে। এতে ঢাকার ২, ৩, ৭, ১৪ ও ১৯- এ পাঁচটি আসনে রদবদল ঘটেছে। কেরানীগঞ্জ উপজেলাকে ঢাকা-২ আসনে ও সাভার উপজেলার সাভার, বিরুলিয়া, তেঁতুলঝোড়া, বনগাঁও, ভাকুর্তা, আমিনবাজার, কাউন্দিয়া এবং সাভার পৌরসভা নিয়ে ঢাকা-৩ আসন গঠন করা হয়েছে। নতুন সীমানায় ঢাকা-৭ আসনের বর্তমান সীমানার সঙ্গে ৫৫, ৫৬ ও ৫৭ নম্বর ওয়ার্ড যুক্ত করা হয়েছে। এ তিনটি ওয়ার্ড বর্তমানে ঢাকা-২ আসনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে। ঢাকা-১৪ আসনের সীমানায়ও পরিবর্তন আনা হয়েছে। এ আসনে বর্তমানে সিটি করপোরেশনের ৭, ৮, ৯, ১০, ১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ড ও সাভার উপজেলার কাউন্দিয়া ইউনিয়ন যুক্ত রয়েছে। নতুন বিন্যাসে কাউন্দিয়াকে ঢাকা-৩ আসনের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া ঢাকা-১৯ আসনে সাভারের আশুলিয়া থানার শিমুলিয়া, ধামসোনা, ইয়ারপুর, আশুলিয়া, পাথালিয়া ও সাভার ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডকে যুক্ত করা হয়েছে। বর্তমান সীমানা অনুযায়ী এ আসনে রয়েছে সাভারের চার ইউনিয়ন বাদে (আমিনবাজার, তেঁতুলঝোড়া, ভাকুর্তা ও কাউন্দিয়া) বাকি সাভার উপজেলা।

কুমিল্লা জেলার চারটি আসনেও বড় পরিবর্তন আনা হয়েছে। প্রকাশিত খসড়ায় দাউদকান্দি ও তিতাস উপজেলা নিয়ে কুমিল্লা-১; হোমনা ও মেঘনা নিয়ে কুমিল্লা-২; কুমিল্লা আদর্শ সদর, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ও কুমিল্লা সেনানিবাস নিয়ে কুমিল্লা-৬ এবং সদর দক্ষিণ, লালমাই ও নাঙ্গলকোট উপজেলা নিয়ে কুমিল্লা-১০ আসন গঠন করা হয়েছে। বর্তমান সীমানায় দাউদকান্দি ও মেঘনা নিয়ে কুমিল্লা-১, হোমনা ও তিতাস নিয়ে কুমিল্লা-২, আদর্শ সদর উপজেলা নিয়ে কুমিল্লা-৬ এবং সদর দক্ষিণ ও নাঙ্গলকোট উপজেলা নিয়ে কুমিল্লা-১০ আসন বিন্যস্ত। এই আসনের সীমানা নিয়ে উচ্চ আদালতে রিট দায়েরের কারণে দীর্ঘদিন সীমানা পুনর্নির্ধারণের কাজ আটকে ছিল। সম্প্রতি বিষয়টির আইনি নিষ্পত্তির কথা জানায় ইসির আইন শাখা।

অন্যান্য জেলার রদবদল :বর্তমানে নীলফামারী-৩ আসনের জলঢাকা উপজেলার সঙ্গে কিশোরগঞ্জ উপজেলার রণচণ্ডী, বড়ভিটা ও পুটিমারী ইউনিয়ন সংযুক্ত থাকলেও তা বাদ দিয়ে শুধু জলঢাকা উপজেলা নিয়ে নীলফামারী-৩ ও কিশোরগঞ্জ পুরো উপজেলা নিয়ে নীলফামারী-৪ আসন গঠন করা হয়েছে।

রংপুর জেলার তিনটি আসনে পরিবর্তন আনা হয়েছে। গঙ্গাচড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত রংপুর-১ আসনের সঙ্গে রংপুর সিটি করপোরেশনের ১, ২, ৩, ৪, ৫, ৬, ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ড যুক্ত করা হয়েছে। অন্যদিকে, রংপুর সদর উপজেলার সঙ্গে সিটি করপোরেশনের বাকি সব ওয়ার্ড যুক্ত করে রংপুর-৩ আসন এবং পীরগাছা ও কাউনিয়া উপজেলা নিয়ে রংপুর-৪ আসন গঠন করা হয়েছে। বিদ্যমান সীমানায় রংপুর-৪ আসনের মধ্যে সিটি করপোরেশনের কিছু ওয়ার্ড যুক্ত রয়েছে।

কুড়িগ্রামের দুটি আসনে পরিবর্তন করা হয়েছে। উলিপুর উপজেলা নিয়ে কুড়িগ্রাম-৩ এবং রৌমারী, রাজীবপুর ও চিলমারী উপজেলা নিয়ে কুড়িগ্রাম-৪ আসন গঠন করা হয়েছে। বিদ্যমান সীমানায় উলিপুরের সাহেবের আলগা ইউনিয়ন রয়েছে চার আসনের সঙ্গে; অন্যদিকে চিলমারী উপজেলার অষ্টমীর চর ও নয়ারহাট ইউনিয়ন ছাড়া বাকি অংশ রয়েছে তিন আসনের সঙ্গে। নতুন খসড়ায় উপজেলা ইউনিটকে অখণ্ড রাখা হয়েছে।

পাবনা জেলার দুটি আসনে পরিবর্তন করা হয়েছে। বর্তমানে পাবনা-১ আসনে সাঁথিয়া উপজেলার সঙ্গে বেড়া পৌরসভাসহ উপজেলার পাঁচটি আসন যুক্ত থাকলেও নতুন প্রস্তাবে শুধু সাঁথিয়াকে নিয়ে একটি আসন এবং সুজানগর ও বেড়া উপজেলার সব এলাকাকে পাবনা-২ আসনে যুক্ত করা হয়েছে।

মাগুরা জেলায় দুটি আসনের সীমানায় পরিবর্তন এসেছে। এখানেও বর্তমান খণ্ডিত উপজেলাকে অখণ্ডিত করে সদর ও শ্রীপুর উপজেলা নিয়ে মাগুরা-১ এবং মহম্মদপুর ও শালিকা উপজেলা নিয়ে মাগুরা-২ আসন গঠন করা হয়েছে।

খুলনা জেলার দুটি আসনে পরিবর্তন করা হয়েছে। ভৌগোলিক অখণ্ডতাকে প্রাধান্য দিয়ে খুলনা সিটি করপোরেশনের ১ থেকে ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের সঙ্গে দীঘলিয়া উপজেলার আড়ংঘাটা ও যোগীপাল ইউনিয়নকে যুক্ত করা হয়েছে। কারণ, এ দুটি ইউনিয়ন দীঘলিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন। এ ছাড়া আড়ংঘাটা ও যোগীপাল ছাড়া দীঘলিয়ার বাকি অংশ, রূপসা ও তেরখাদা উপজেলা নিয়ে খুলনা-৪ আসন গঠন করা হয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলার দুটি আসনে পরিবর্তন আনা হয়েছে। আশাশুনি ও দেবহাটা উপজেলা নিয়ে সাতক্ষীরা-৩ আসন এবং শ্যামনগর ও কালীগঞ্জ নিয়ে সাতক্ষীরা-৪ আসন গঠন করা হয়েছে। বিদ্যমান সীমানায় কালীগঞ্জের চারটি ইউনিয়ন সাতক্ষীরা-৩ আসনে সংযুক্ত ছিল।

জামালপুরের দুটি আসনে পরিবর্তন এসেছে। সরিষাবাড়ী নিয়ে জামালপুর-৪ ও সদর উপজেলা নিয়ে জামালপুর-৫ আসন গঠন করা হয়েছে। বিদ্যমান সীমানায় সদর উপজেলার মেষ্টা ও তিতপল্লা ইউনিয়ন সরিষাবাড়ীর সঙ্গে যুক্ত ছিল।

নারায়ণগঞ্জের দুটি আসনে পরিবর্তন আনা হয়েছে। আলীরটেক ও গোগনগর ইউনিয়ন ছাড়া সদর উপজেলার সঙ্গে সিটি করপোরেশনের ১ থেকে ১০ নম্বর ওয়ার্ড যুক্ত করে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসন গঠন করা হয়েছে। অন্যদিকে, বন্দর উপজেলা এবং সিটি করপোরেশনের ১১ থেকে ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের সঙ্গে সদর উপজেলার আলীরটেক ও গোগনগর যুক্ত করে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন গঠন করা হয়েছে।

শরীয়তপুর জেলার দুটি আসনে পরিবর্তন আনা হয়েছে। নড়িয়া ও ভেদরগঞ্জ উপজেলা নিয়ে শরীয়তপুর-২ এবং ডামুড্যা ও গোসাইরহাট উপজেলা নিয়ে শরীয়তপুর-৩ আসন গঠন করা হয়েছে।

পরিবর্তন আনা হয়েছে মৌলভীবাজারের দুটি আসনে। মৌলভীবাজার-২ আসনে বর্তমানে কুলাউড়ার সঙ্গে কমলগঞ্জ উপজেলার আংশিক থাকলেও এখন তা বাদ দেওয়া হয়েছে। শুধু কুলাউড়া নিয়ে মৌলভীবাজার-২ আসন এবং শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ উপজেল