সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার হলে হামলা চালাবে যুক্তরাষ্ট্র

0
105

download (1)আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের পরিকল্পনার অভিযোগ তুলেছে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার হোয়াইট হাউস থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে দেশটির বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়েছে, সিরিয়া রাসায়নিক হামলা চালালে তাদের এর জন্য চরম মূল্য দিতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ায় পাল্টা হামলা চালাবে। খবর বিবিসি, রয়টার্সের। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের এই হুমকির সমালোচনা করেছে রাশিয়া। ক্রেমলিনের একজন মুখপাত্র বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এ ধরনের হুমকি গ্রহণযোগ্য নয়।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সন স্পাইসার বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আসাদ সরকারের আরেকটি রাসায়নিক হামলার পরিকল্পনার কথা জানতে পেরেছে যুক্তরাষ্ট্র। এই হামলায় শিশুসহ বেসামরিক নাগরিকদের ব্যাপক প্রাণহানি ডেকে আনবে।’ বিবৃতিতে দাবি করা হয়, গত ৪ এপ্রিলে যে রাসায়নিক হামলা চালানো হয়েছিল, আসাদ সরকারের কার্যক্রমে সে ধরনের প্রস্তুতি দেখা গেছে। সন স্পাইসার বলেন, ‘আসাদ যদি রাসায়নিক অস্ত্র দিয়ে আরেকটি গণহত্যা চালান, তাহলে তাকে ও তার সেনাবাহিনীকে চরম মূল্য দিতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি হামলা চালাবে আসাদের বিরুদ্ধে।’

যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, রাশিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র আসাদ সরকার এপ্রিলে বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত খান শেইখুন শহরে রাসায়নিক হামলা চালিয়েছিল। তবে সিরিয়া সরকার এ দাবি অস্বীকার করে আসছে। তাদের দাবি, এটি যুক্তরাষ্ট্রের সম্পূর্ণ সাজানো অভিযোগ।

বিশ্লেষকরা বলেছেন, সিরিয়ার সরকারকে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের ব্যাপারে এ রকম প্রকাশ্য হুমকি দেওয়া খুবই অস্বাভাবিক।

কারণ এ ধরনের সতর্কবাণী দিতে হলে তার আগে দরকার হয় বিস্তারিত গোয়েন্দা তথ্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here