লস্কর-ই-তৈয়বার ভক্ত পাকিস্তানের পারভেজ মোশাররফ

0
66

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের সাবেক সেনাশাসক পারভেজ মোশাররফ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈয়বা এবং দলের প্রধান হাফিজ সাঈদের বিশাল ভক্ত বলে দাবি করেছেন। জম্মু ও কাশ্মিরে সংগঠনটি ভারতীয় সেনাবাহিনীকে যেভাবে প্রতিহত করছে তারও প্রশংসা করেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বুধবার এক প্রতিবেদনে জানায়, সম্প্রতি একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে আলাপকালে তিনি এমন অবস্থানের কথা জানান। পাকিস্তানের এই সাবেক প্রেসিডেন্ট ক্ষমতা হারানোর পর বর্তমানে দুবাইতে স্বেচ্ছা নির্বাসনে আছেন।

আলাপকালে ৭৪ বছর বয়সী মোশাররফ বলেন, মুম্বাই হামলার মূল নায়ক হাফিজ কাশ্মিরের স্বাধীনতা আন্দোলনে রয়েছেন এবং সে ব্যাপারে তার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। তিনি আরও বলেন, ভারতীয় বাহিনীকে তিনি ও তার দল যেভাবে নাস্তানাবুদ করছে- তা প্রশংসার দাবিদার।

লস্কর-ই-তৈয়বাকে বিশাল সংগঠন আখ্যা দিয়ে মোশাররফ বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ভারত দলটিকে জঙ্গি আখ্যা দিয়েছে। কিন্তু এই দলটি কাশ্মিরকে নিয়েই ব্যস্ত, যা শুধু ভারত ও পাকিস্তানের বিষয়।
যদিও পারভেজ মোশাররফ ক্ষমতায় থাকাকালেই দলটিকে তিনি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন। দলটির প্রধানকেও পাকিস্তানের কারাগারে কাটাতে হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে পাকিস্তানের সাবেক এই সেনাপ্রধান বলেন, তখন হাফিজ সাঈদকে তিনি চিনতেন না। দলের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কেও তার সঠিক ধারণা ছিল না।

তিনি দাবি করেন, সেই সময় যদি হাফিজের সম্পর্কে তার জানা থাকত তাহলে কখনই তিনি দলটিকে নিষিদ্ধ করতেন না। পারভেজ মোশাররফ আরও জানান, শুধু লস্কর-ই-তৈয়বাই নয়, তার পছন্দের খাতায় জামাত-উদ-দাওয়াসহ আরও অনেক নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন রয়েছে।

পারভেজ মোশাররফ এমন এক সময়ে মন্তব্যটি করলেন যখন পাকিস্তান সরকারের নির্দেশে হাফিজ সাঈদকে সম্প্রতি মুক্তি দেয়া হয়েছে। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে তিনি দেশটিতে গৃহবন্দি ছিলেন।

তবে এই সিদ্ধান্তের পর ভারত তীব্র প্রতিক্রিয়া জানায়। পাকিস্তানের এমন পদক্ষেপ জঙ্গিবাদকে সমর্থন এবং উসকে দেয়ার অপচেষ্টা বলে মন্তব্য করে দিল্লি। এমন সিদ্ধান্তের কারণে এই অঞ্চলের শান্তি বজায় রাখার চেষ্টা হুমকির মুখে পড়বে বলেও দাবি করা হয়।

ভারতের মুম্বাইয়ে ২০০৮ সালে জঙ্গি হামলায় ১৬৬ জন নিহত হন। তদন্তে এই হামলার পেছনে মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে হাফিজ সাঈদের নাম উঠে আসে। ফলে সে বছরের ডিসেম্বরে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ হাফিজ সাঈদ ও তার দলকে বৈশ্বিক সন্ত্রাসবাদী সংগঠন হিসেবে কালো তালিকাভুক্ত করে।

LEAVE A REPLY