রেইনট্রিতে দুই ছাত্রী ধর্ষণ, বিচারের জন্য মামলা ট্রাইব্যুনালে

0
79

banani_49350_1497208749ঢাকা: রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই ছাত্রী ধর্ষণ মামলা (চার্জশিটসহ অন্যান্য নথিপত্র) বিচারের জন্য ট্রাইব্যুনালে বদলির আদেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শেখ হাফিজুর রহমান এ আদেশ দেন।

ইতিমধ্যেই ঢাকার দুই নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলার নথিপত্র পৌঁছে গেছে। আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) আবদুল মান্নান যুগান্তরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, তদন্ত কর্মকর্তার দাখিলকৃত চার্জশিট বিচারের জন্য ট্রইব্যুনালে পাঠানো হয়েছে। ট্রাইব্যুনাল এখন পর্যালোচনা করবেন পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে তদন্ত কর্মকর্তার দেয়া ওই চার্জশিটের গ্রহণযোগ্যতা কতটুকু।

এর আগে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেলোয়ার হোসেন এ চার্জশিট দেখেছেন।

জানতে চাইলে সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের স্ট্রেনোগ্রাফার মো. নাজমুল বলেন, মামলার চার্জশিটসহ নথিপত্র ট্রাইব্যুনালে পৌঁছে গেছে। সোমবার মামলাটির চার্জশিট গ্রহণের বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য করতে পারেন ট্রাইব্যুনাল।

নির্ধারিত ওই দিনে ট্রাইব্যুনাল চার্জশিট গ্রহণ করলে মামলার বিচার কাজ শুরু হবে। ধর্ষণের শিকার হওয়ার অভিযোগ এনে ৬ মে বনানী থানায় মামলা করেন দুই তরুণী।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২৮ মার্চ পূর্বপরিচিত সাফাত আহমদ ও নাঈম আশরাফ ওই দুই তরুণীকে জš§দিনের দাওয়াত দেয়। এরপর তাদের বনানীর ‘কে’ ব্লকের ২৭ নম্বর সড়কের রেইনট্রি নামের হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে একটি কক্ষে আটকে রেখে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে তাদের ধর্ষণ করে সাফাত ও নাঈম। ধর্ষণের এ ঘটনা সাফাতের গাড়িচালক বিল্লালকে দিয়ে ভিডিও করানো হয়।

ধর্ষণ মামলার আসামিরা হল সাফাত আহমদ, নাঈম আশরাফ, সাদমান সাকিফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here