রানির বাগানে মালি চেয়ে বিজ্ঞাপন

0
257

231950elizabeth_kalerkantho_picআন্তর্জাতিক ডেস্ক: মুশকিল আসান উড়ে মালি, রাজপ্রাসাদ কর্মখালি! তাও আবার যে সে রাজপ্রাসাদ নয়, একেবারে বাকিংহাম প্যালেসের ওয়েব দেওয়ালে পড়েছে এমন বিজ্ঞাপন৷

পদটি অবশ্য মালির৷ কিন্তু, তাতে কী? রাজার থুড়ি রানির বাগানের মালি হওয়া তো কম গর্বের কথা নয়৷ তাই বিজ্ঞাপন পড়তেই হুলুস্থূল পড়ে গিয়েছে দুনিয়ার বাগান-করিয়েদের মধ্যে৷ গাছ-পালা, ফুল-ফলের চর্চাকে মাথায় তুলে আপাতত জবরদস্ত একখান বায়োডাটা বানানোয় মন দিয়েছেন তাঁরা৷

মালিকে অবশ্য ব্রিটেনেরই হতে হবে এমনটা কোথাও বলা হয়নি৷ দেশ কিংবা জাতির ব্যারিকেডে বাগানের সৌন্দর্যকে বেঁধে রাখতে চান না রানি৷ ভারতের জবা-টগর-অপরাজিতা কিংবা চীনের প্লাম ব্লসম ফুটতেই পারে রানির সাজানো বাগানে৷ তাই মালি উড়ে কিংবা ইতালিয়ান– যে কোনও জাতির হতে পারেন৷ শুধু কুঁড়ে না হলেই হল৷

আসলে রাজপ্রাসাদের বাগানে অনুষ্ঠান লেগেই থাকে৷ রাজা-রাজড়ার খেয়াল বলে কথা৷ কিছু একটা হলেই হল৷ অমনি দেশ বিদেশের উচ্চবংশীয়রা দল বেঁধে হাজির হন৷ আয়োজন হয় হাই প্রোফাইল গার্ডেন পার্টির৷ তাই চটপট বাগান সাজানোর এলেমও থাকতে হবে মালির৷ হতে হবে একাধারে ব্যতিক্রমী ও অন্য ধারে সৃষ্টিশীল৷ করতে হবে হাসিমুখে মুশকিল আসান৷ আর তা হলেই কেল্লা ফতে৷ রানি খুশি হলে উপচে উঠবে উপার্জনের ঝুলি৷ অন্তত তেমনই ইঙ্গিত মিলেছে রাজপ্রাসাদের বিজ্ঞাপনে৷

আপাতত মালির বছর প্রতি বেতন ঠিক হয়েছে ১৬ হাজার ৫০০ পাউন্ড৷ অর্থাত্‍ ভারতীয় মুদ্রায় ১৫ লাখ টাকার কাছাকাছি৷ আনুষঙ্গিক হিসাবে থাকছে থাকা-খাওয়ার যাবতীয় সুবিধা৷ মালি ও তাঁর পরিবারের জন্য আলাদা বাড়ি তো দেওয়া হবেই৷ সেই সঙ্গে তাঁদের খাওয়া-দাওয়ার খরচও বহন করবে রাজ পরিবারের সংসারপাতি দেখাশোনার দায়িত্বে থাকা রয়্যাল হাউজহোল্ড৷
নিজেদের ওয়েবসাইটে দেওয়া বিজ্ঞাপনে বাকিংহাম জানিয়েছে, কর্মীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া এবং তাঁদের দক্ষতার মানোন্নয়নের সমস্ত ব্যবস্থা করবে তারা৷ সঙ্গে বছরে ৩৩ দিনের ছুটি, ১৫ শতাংশ এমপ্লয়ার কন্ট্রিবিউশন পেনশন প্রকল্প এমনকী কর্মচারীর জন্য বিশেষ মনোরঞ্জন ভাতাও থাকবে৷

কী ভাবছেন? আবেদনপত্র পাঠাবেন? তাহলে বিজ্ঞাপনের বাকি অংশটুকু জেনে নিন৷ আবেদনকারীর খেলার মাঠ তৈরির শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে৷ অন্তত দ্বিতীয় স্তরভুক্ত শংসাপত্রের অধিকারী হতে হবে৷ যে কোনও সময়ে কাজে লেগে পড়ার মানসিকতা থাকা জরুরি৷ সেই সঙ্গে আবেদনকারী যে জাতিরই হোন না কেন, তাঁর ব্রিটেনের ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকতে হবে৷

আবেদনপত্র পাঠানোর শেষ তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর৷ তাই আর দেরি নয়!

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here