‘যে পারেনি নয়ে সে পারবে না নব্বইয়ে’

0
221

pm7 (1)সরকারী চাকুরীতে আবেদনের বয়স আর কত বাড়াতে হবে জানতে চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যে পারবে না নয়ে (৯) সে পারবে না নব্বইতে (৯০)।

বুধবার জাতীয় সংসদে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজীর এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, এক সময় বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সেশনজট ছিলো। এখন সেশন জট নেই। তারপরও সরকারী চাকুরীতে প্রবেশের বয়সসীমা ২৫ ছিলো সেখান থেকে বৃদ্ধি করা হয়েছে। আর কত বাড়াতে হবে? যে পারে সে এমনিই পারে। যে পারবে না নয়ে, সে পারবে না নব্বইতে।

সংসদ সদস্য নুরুল ইসলাম ওমরের অপর এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সরকারী কর্মকর্তাদের আবাসন নির্মাণের বিষয়টি বিবেচনায় আছে। আমরা বেতন বাড়িয়ে দিয়েছি। ব্যাংক এবং হাউস বিল্ডিং থেকে লোন নিতে পারেন। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী চাইলে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে সারা দেশের মসজিদ গুলোতে খুতবাহ নির্ধারণ করে দেওয়া হয়নি জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ বিরোধী কোরআন ও হাদিস সমূহের উক্তিগুলো নিয়ে একটা ছোট পুস্তিকা দেওয়া হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, “ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে একটি খুতবাহ তৈরী করে দেওয়া হয়েছে-তা কিন্তু না। এখানে আমাদের কোরআন শরীফে বিভিন্ন সুরায় জঙ্গি এবং সন্ত্রাস ও খুন-খারাবির বিরুদ্ধে যে সমস্ত উদ্বৃতি রয়েছে সেগুলো নবী করিম (স.) বিভিন্ন ধর্ম সম্পর্কে যে সমস্ত কথা বলেছেন, এই যে খুন-হত্যা জঙ্গিবাদ এর বিরুদ্ধে তিনি যে কথা বলেছেন।

তিনি মানবতার পক্ষে কথা বলেছেন, ইসলাম যে শান্তির ধর্ম হিসেবে যে সমস্ত উক্তি সেগুলি বিভিন্ন হাদিস-কালামে যে সমস্ত উক্তি রয়েছে শান্তির পক্ষে এবং জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সে সমস্ত উক্তিগুলো দিয়ে একটা ছোট পুস্তিকা করা হয়েছে। এটার সংক্ষিপ্ত একটা লিফলেটও বের করা হয়েছে এবং সেটাই মসজিদে মসজিদে দেওয়া হয়েছে।”

তিনি বলেন, “খুতবাহর বিভিন্ন স্তর আছে। অন্তত পক্ষে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ বিরুদ্ধে যে উক্তিগুলো রয়েছে সেগুলো পাঠ করা হয়। মসজিদ ঈমাম সাহেবরা যখন বয়ান দেন বা আমাদের ধর্মীয় গুরুরা যখন কথা বলেন-তাদের কিন্তু একটা জনমত সৃষ্টি করার সুযোগ আছে। তারা যেন জনমত সৃষ্টি করতে পারে তার জন্যেই দেওয়া হয়েছে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here