যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা দলের মতবিনিময় সভায় ঐক্যের আহবান

0
46

05022017_02_MUKTIJUDDHA_DALনিউইয়র্ক থেকে : ‘বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান পুনপ্রতিষ্ঠার স্বার্থে প্রবাসে বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের আদর্শে উজ্জীবিতদের ঐক্যের বিকল্প নেই। বাংলাদেশে যা করা সম্ভব হচ্ছে না, তা অবলীলায় এই প্রবাসে করা সম্ভব এবং ক্ষমতাসীন সরকারের অপকর্মের ব্যাপারে আন্তর্জাতিক জনমত সৃষ্টি করাও সহজ হয়’-এ অভিমত পোষণ করেছেন বিএনপি সমর্থক মুক্তিযোদ্ধা দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফত। ২৯ এপ্রিল শনিবার রাতে নিউইয়র্কে যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে এক মতবিনিময় সমাবেশে ইশতিয়াক আজিজ আরো বলেন, ‘এখন সময় হচ্ছে বিবাদ-বিভক্তি পরিহার করে সকলের ঐক্যবদ্ধ হবার। জাতিসংঘ, স্টেট ডিপার্টমেন্ট, ক্যাপিটল হিলে বিএনপির কর্মসূচির সমর্থনে লবিং করতে প্রতিটি নেতা-কর্মীকে সোচ্চার হতে হবে।’

যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি আলহাজ্ব বাবরউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে অতিথি হিসেবে অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক গিয়াস আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব সোলায়মান ভ’ইয়া, মুক্তিযোদ্ধা দলের সহ-সভাপতি কাজী আজহারুল হক মিলন এবং সেক্রেটারি মো. সুরুজ্জামান, যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক সম্পাদক এম এ বাতিন প্রমুখ।

যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধাকল্পে আমরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে কংগ্রেসে লবিং চালাচ্ছি। জাতিসংঘেও স্মারকলিপি দিয়েছি।’ তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির অনুমোদিত কমিটি যত দ্রুত আসবে, আমাদের তৎপরতা ততবেশী সংগঠিতভাবে করা সম্ভব হবে।’গিয়াস আহমেদ বলেন, ‘৪ বছর আগে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির কমিটি ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। এখনও কমিটির অনুমোদন হাই কমান্ড থেকে না আসায় নেতা-কর্মীরা ছিন্নভিন্ন হয়ে পড়েছেন।’

আলহাজ্ব সোলায়মান ভূইয়া বলেন, ‘দেশনেত্রীর আহবানে আমরা এখনও পদ-পদবি ছাড়াই কাজ করছি। তবে সকলেই অধীর অপেক্ষায় রয়েছি নতুন কমিটির জন্যে।’যুবনেতা এম এ বাতিন বলেন, ‘নিউইয়র্ক হচ্ছে বিএনপির ঘাঁটি। আমরা ঐক্যবদ্ধ রয়েছি এবং হাই কমান্ডের নির্দেশ পেলেই এই প্রবাসেও আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়বো।’সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে আলহাজ্ব বাবরউদ্দিন বলেন, ‘শহীদ জিয়ার সৈনিকেরা ঐক্যবদ্ধ রয়েছে মুক্তিযোদ্ধা দলের ব্যানারে। এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নয়া কমিটি এলে কার্যক্রম চাঙ্গা হবে খুব দ্রুত।’

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY