যুক্তরাষ্ট্রে রেকর্ড সংখ্যক মুসলিমের আশ্রয় লাভ

0
235

syrian_refugee_22626_1471597115ঢাকা ডেস্ক: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের তুলনায় বেশি হারে মুসলিম শরণার্থীরা আশ্রয় পাচ্ছেন।

গত ১৫ বছর ধরে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা সর্বোচ্চ সংখ্যক আশ্রয় পেয়ে আসছিল। তবে চলতি বছরে এ হিসাব উল্টে গেছে।

এবার আশ্রয় পাওয়া ৬৩ হাজার শরণার্থীর মধ্যে ২৮ হাজার ৯৫৭ জনই মুসলিম। অন্যদিকে খ্রিস্টান শরণার্থীর সংখ্যা ২৭ হাজার ৫৫৬ জন।

মুসলিম শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে একজন বাংলাদেশী রয়েছেন। সবমিলে গত ১৫ বছরে চারজন মুসলিমসহ ১২ জন বাংলাদেশীকে আশ্রয় দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের ‘রিফিউজি প্রসেসিং সেন্টার’ ও জরিপকারী সংস্থা পিউ রিসার্চ সেন্টারের তথ্য থেকে এ চিত্র পাওয়া গেছে।

পিউ রিসার্চ সেন্টারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে চলতি অর্থবছরে (১ অক্টোবর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত) ৮৫ হাজার মানুষকে আশ্রয় দেয়ার কথা রয়েছে।

সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, ১৬ আগস্ট পর্যন্ত ৬৩ হাজার জনকে আশ্রয় দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যার মধ্যে ২৮ হাজার ৯৫৭ জনই মুসলিম শরণার্থী, যা মোট আশ্রিতের ৪৬ ভাগ।

অন্যদিকে খ্রিস্টান শরণার্থীর সংখ্যা ২৭ হাজার ৫৫৬ জন, যা মোট শরণার্থীর ৪৪ ভাগ।

এছাড়া আশ্রয় পেয়েছেন দুই হাজার পাঁচশ’ বৌদ্ধ, এক হাজার পাঁচশ’ হিন্দু ধর্মাবলম্বী এবং ৩৩৮ জন নাস্তিক। এর বাইরে অন্যান্য ধর্মের অনুসারী রয়েছেন দুই হাজারেরও বেশি মানুষ।

পিউ রিসার্চ জানিয়েছে, ২০০২ অর্থবছর থেকে গত ১৫ বছরে যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় আট লাখ ৪৭ হাজার ২০০ শরণার্থী আশ্রয় পেয়েছেন। এদের মধ্যে খ্রিস্টান শরণার্থীর সংখ্যা তিন লাখ ৮৯ হাজার ৭১২ জন, যা মোট শরণার্থীর ৪৬ ভাগ।

অন্যদিকে মুসলিম শরণার্থীর সংখ্যা দুই লাখ ৬৯ হাজার ৩৯৫ জন, যা মোট শরণার্থীর ৩২ ভাগ।

এই ১৫ বছরে ১২ জন বাংলাদেশীকে আশ্রয় দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যার মধ্যে চারজন মুসলিম, দু’জন হিন্দু এবং তিনজন করে খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী রয়েছেন।

চলতি বছরের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এবারের ২৮ হাজার ৯৫৭ জন মুসলিম শরণার্থীর মধ্যে মাত্র চারটি দেশ থেকেই ২৬ হাজার ৩৬১ জন আশ্রয় পেয়েছেন।

এর মধ্যে সিরিয়ার ৮ হাজার ৫১১ জন, সোমালিয়ার ৭ হাজার ২৩৪ জন, ইরাকের ৬ হাজার ৭১ জন, মিয়ানমারের ২ হাজার ৫৫৪ জন এবং আফগানিস্তানের ১ হাজার ৯৪৮ জন শরণার্থী রয়েছেন।

বিশ্বের বাকি দেশগুলো থেকে আশ্রয় পেয়েছেন দুই হাজার ৬৩৯ জন মুসলমান, যার মধ্যে মাত্র একজন বাংলাদেশী শরণার্থী রয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের ‘রিফিউজি প্রসেসিং সেন্টারের’ তথ্য অনুযায়ী আশ্রিত ওই বাংলাদেশী একজন সুন্নী মুসলমান।

সেন্টারের হিসাব অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্র ২০০৩ সালে একজন বাংলাদেশী মুসলিম, ২০০৬ সালে একজন খ্রিস্টান ও একজন হিন্দুকে আশ্রয় দেয়।

এরপর তিন বছর কোনো বাংলাদেশী যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় পায়নি। পরে ২০১০ সালে একজন মুসলিম ও একজন হিন্দুকে আশ্রয় দেয় দেশটি।

ফের দুই বছর বিরতি দিয়ে ২০১৩ সালে একজন বাংলাদেশী মুসলিম, ২০১৪ সালে দু’জন খ্রিস্টান এবং ২০১৫ সালে তিনজন বৌদ্ধকে আশ্রয় দেয় যুক্তরাষ্ট্র। সর্বশেষ চলতি বছরে একজন বাংলাদেশী মুসলিম আশ্রয় পেয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here