মেগানের পিছনে ছুটছে ক্যামেরার লেন্স, সামলাতে পারবেন তো চাপ?

0
34

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: বিয়ের বাদ্য বাজছে। আর তিন দিন পরই আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রিটিশ রাজবধূ হতে যাচ্ছেন মেগান মর্কেল। কিন্তু এরই মধ্যে একটি প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে বাতাসে। নতুন বউ মেগানের ওপরে কি পড়তে যাচ্ছে তার শাশুড়ি প্রিন্সেস ডায়ানার ছায়া?

গণমাধ্যমকে সামাল দেয়ার ক্ষেত্রে মেগানের রয়েছে দারুণ নৈপুণ্য। ঠিক প্রিন্সেস ডায়ানার মতো।

মার্কিন এ অভিনেত্রী নিজেও একজন সুদক্ষ ‘কমিউনিকেটর’। ক্যামেরা ও মাইক্রোফোনের সামনে মেগান সবসময় সপ্রতিভ। একই রকমভাবে বিভিন্ন সামাজিকমাধ্যমে যোগাযোগের ক্ষেত্রেও তিনি দুর্দান্ত।-খবর বিবিসি বাংলার।

অভিনেত্রী হিসেবে চলচ্চিত্র ও টিভিনাটকে অভিনয় করে মেগান খ্যাতি পেয়েছেন। এ ছাড়া সাক্ষাৎকার, ভ্রমণ, বক্তৃতা ও ভক্তবৃন্দের সঙ্গে বিভিন্ন আসরে যোগ দিয়েছেন।

ফলে গণমাধ্যমকে সামলানোর তরিকা মেগান হয়তো বেশ ভালোই রপ্ত করেছেন। কিন্তু এখন তো তিনি হতে যাচ্ছেন ব্রিটিশ রাজবধূ! রাজবধূ হিসেবে এখন থেকে দিনে-রাতে অষ্টপ্রহর তাকে ঘিরে থাকবে পাপারাজ্জির চোখ। গুঞ্জন উঠেছে, এত তীব্র চাপ মেগান সামলাতে পারবেন তো?

কারণ অভিনেত্রী হলেও হলিউড মাতানো কোনো মহাতারকা তো আর মেগান ছিলেন না। তাই চাইলেই এমনকি যে কোনো একটা সাধারণ রেস্তোরাঁয় বসেও দিব্যি সেরে নিতে পেরেছেন দুপুর বা রাতের খাবার। সেই সময় হয়তো তাকে খুব খেয়ালও করেনি মানুষজন।

কিন্তু এখন! এ এক কল্পনাতীত ব্যাপার! মেগানের নিকটাত্মীয়রা খুঁজছে পাপারাজ্জির চোখ!

মেগানের দিকে সারাক্ষণ তাক করা কারো না কারো ক্যামেরার ল্যান্স। আর তাকে অনুসরণ করার অংশ হিসেবেই মেগানের নিকটাত্মীয়দের জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বৈকি!

তার মা এমনকি দরজা খুলে বাড়ির বাইরে বের হতে গেলেও দেখছেন বেজে উঠছে ক্যামেরার শাটার।

এমনকি মেগানের গাঁটের খবর বের করতে তার পুরনো প্রেমিককে টাকা দিয়ে হাত করার চেষ্টা পর্যন্ত করেছে শিকারির দল। মেগান হয়তো প্রিন্সেস ডায়ানার মতোই খুবই দৃঢ়চেতা, স্বাধীন আর বলিষ্ঠ ব্যক্তিত্বধারী।

তাই এ অবস্থায়ও তিনি মিডিয়ার চাপ সইতে পেরেছেন। কিন্তু তার আত্মীয়দের বেলায় কী হবে?

তারা যে এত চাপ সামলাতে পারবেন না ইতিমধ্যেই অবশ্য সেই লক্ষণ মিলেছে। মেগানের পরিবারের সদস্যদের অনুক্ষণ ক্যামেরা হাতে অনুসরণ করার মাধ্যমে তাদের ব্যক্তিগত জীবনে হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে বলে ইতিমধ্যেই একবার উষ্মাও প্রকাশ করেছেন স্বয়ং প্রিন্স হ্যারি।

মেগানের ওপর যখন ঘনিয়েছে ডায়ানার ছায়া

আজ থেকে দুই দশকেরও বেশি সময় আগে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে প্রিন্সেস ডায়ানার ভাই বলেছিলেন, তার যুগে তার বোনই ছিলেন সবচেয়ে তাড়া খাওয়া মানুষ।

কারণ সবাই তার বোনের পিছু ছুটেছেন। আর মাত্র দুদিন পর রাজবধূ হতে যাওয়া মেগানের ভাগ্যও যেন ডায়ানার দিকেই যাচ্ছে। ডায়ানার মতোই মেগান ও তার পরিবারও এখন শুনছে শিকারির পদধ্বনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here