মাশরাফির ফেরার ম্যাচে বাংলাদেশের আশা

0
57

bangladesh_47344_1494994264স্পোর্টস ডেস্ক: চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগে নিজেদের আরও ভালোভাবে তৈরি করার আদর্শ মঞ্চ হতে পারে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ। তবে র‌্যাংকিংয়ের হিসাব-নিকাশ থাকায় শুধু চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রস্তুতি নয়, এ সিরিজ বাংলাদেশের জন্য আরও বড় কিছু।সিরিজে নিজেদের চার ম্যাচের তিনটিতে জিতলে এক ধাপ এগিয়ে ওয়ানডে র‌্যাংকিয়ের ছয়ে উঠে যাবে বাংলাদেশ।

সেক্ষেত্রে ২০১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি অংশ নেয়াও নিশ্চিত হয়ে যাবে। কিন্তু ১২ মে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়ায় কাজটা কঠিন হয়ে গেছে।

এখন বাকি তিন ম্যাচের একটিতে হারলেই সিরিজ জয়ের আশা কার্যত শেষ হয়ে যাবে। এ সমীকরণ সামনে রেখে সিরিজে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। ডাবলিনেরই আরেক ভেন্যু ক্লোনটার্ফ ক্রিকেট ক্লাব গ্রাউন্ডে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টা ৪৫ মিনিটে শুরু হবে ম্যাচ।

আইপিএলের কারণে মূল দলের সাতজন খেলোয়াড়কে এ সিরিজে পাচ্ছে না নিউজিল্যান্ড। তারপরও ম্যাচটা বাংলাদেশের জন্য বড় পরীক্ষা। কারণ দ্বিতীয় সারির দল নিয়েই সিরিজে শুভসূচনা করেছে কিউইরা।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে তারা ৫১ রানে হারিয়েছে। অন্যদিকে বৃষ্টির বাগড়ায় আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

ত্রিদেশীয় সিরিজে কোনো ফাইনাল নেই। তিন দল পরস্পরের সঙ্গে দুটি করে ম্যাচ খেলবে। সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট পাওয়া দলটাই হবে চ্যাম্পিয়ন। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আশা বাঁচিয়ে রাখার মিশনে নতুন চেহারার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আজ নিজেদের সম্ভাব্য সেরা একাদশই পাচ্ছে বাংলাদেশ। স্লো ওভার রেটের কারণে এক ওয়ানডেতে নিষেধাজ্ঞা থাকায় প্রথম ম্যাচে খেলা হয়নি নিয়মিত অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজার।

তার বদলে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আজ ফিরছেন মাশরাফি। বিদেশের মাটিতে কিউইদের বিপক্ষে কখনও জিততে না পারার আক্ষেপ ঘোচানোর এটাই হয়তো সেরা সুযোগ। কেন উইলিয়ামসন, মার্টিন গাপটিল, ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি ও কোরি অ্যান্ডারসনের মতো তারকাদের অনুপস্থিতিতে নিউজিল্যান্ড দলে অভিজ্ঞতার ঘাটতি অবশ্যই থাকবে।

আজ তাই ভালো করার ব্যাপারে আশাবাদী মাশরাফিরা। তবে কাজটা একেবারে সহজ হবে না। কয়েক মাস আগেই নিউজিল্যান্ড সফরে তিন ফরম্যাট মিলিয়ে সিরিজের সব ম্যাচে হারার দুঃস্মৃতি রয়েছে বাংলাদেশের। এছাড়া নিউজিল্যান্ডের নতুন চেহারার দলেও রয়েছে কিছু চেনা মুখ। মিচেল স্যান্টনার, নিল ব্রুম ও রস টেলরের মতো অভিজ্ঞরাই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পার্থক্য গড়ে দিয়েছেন।

নতুনদের নিয়েও আশাবাদী এ সিরিজের কিউই অধিনায়ক টম লাথাম। তবে বাংলাদেশকে সমীহের চোখেই দেখছেন লাথাম, ‘কিছুদিন আগেই আমরা বাংলাদেশের সঙ্গে খেলেছি। ভালো করেই জানি, কতটা শক্তিশালী হতে পারে তারা। এখন দেখা যাক, কন্ডিশন ও উইকেট কেমন হয়। পরিস্থিতি বুঝেই পরিকল্পনা সাজাতে হবে।’

লাথাম যে কন্ডিশনের কথা বললেন, সেটা বাংলাদেশের জন্য আরেক চ্যালেঞ্জ। আইরিশ কন্ডিশন যে সমস্যা হতে পারে সেটা বোঝা গেছে প্রথম ম্যাচেই। বৃষ্টিতে ম্যাচটা পরিত্যক্ত হয়ে যাওয়ার আগে মেঘলা কন্ডিশন ও সবুজ উইকেটে শুরুর দিকে আইরিশ বোলাররা যথেষ্ট ভুগিয়েছেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। তবে ১৫ ওভারের মধ্যে চার উইকেট হারানোর ধাক্কা সামলে তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহর ৮৭ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ভালোভাবেই ঘুরে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশ। ৩১.১ ওভারে চার উইকেটে বাংলাদেশের রান যখন ১৫৭, তখনই বৃষ্টি এসে ভাসিয়ে দেয় ম্যাচ। আজ আরও পরিণত ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি প্রত্যাশা থাকবে ডাবলিনের আকাশও যেন মিষ্টি রোদে হাসে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here