মাশরাফির জন্য জিততে চায় বাংলাদেশ

0
149

mashrafee_44003_1491422064স্পোর্টস ডেস্ক: তার কাছে সবার আগে দেশ। আন্তর্জাতিক টি ২০ ক্রিকেট থেকে তার আচমকা অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়ে কোনো বিতর্ক হোক তা চান না মাশরাফি মুর্তজা। তার চাওয়া একটাই, বাংলাদেশের ক্রিকেট এগিয়ে যাক। বিদায়বেলাতেও মাশরাফির মুখে ‘আমরা’, ‘দেশের চেয়ে বড় কিছু আর নেই। আমরা শেষটা ভালো করতে চাই।’ সিংহ হৃদয় এই মানুষটি নিজের জন্য কিছু না চাইলেও কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে আজ সফরের শেষ ম্যাচে সব সমীকরণ একপাশে সরিয়ে রেখে শুধু মাশরাফির জন্য খেলবে বাংলাদেশ। বিদায়ী ম্যাচে অধিনায়ককে জয় উপহার দিতে উদগ্রীব দলের সবাই।

জয়ই হবে যোগ্য উপহার। মাশরাফির শেষ টি ২০ ম্যাচটা বাংলাদেশ জিতলে এবারের শ্রীলংকা সফরে টেস্ট ও ওয়ানডের পর দুই ম্যাচের টি ২০ সিরিজও ১-১ এ ড্র হবে। একই ভেন্যুতে মঙ্গলবার সিরিজের প্রথম টি ২০তে প্রতিদ্বন্দ্বিতাই গড়তে পারেনি বাংলাদেশ। হেসেখেলে শ্রীলংকা জিতেছে ছয় উইকেটে। সিরিজ বাঁচাতে আজ তাই জয়ের কোনো বিকল্প নেই বাংলাদেশের সামনে। তবে সিরিজ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ নয়, সফরের শেষ ম্যাচটিকে মাশরাফির বিদায় লগ্ন রাঙিয়ে রাখার উপলক্ষ হিসেবে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। আজ শুধু মাশরাফির জন্য জিততে চান তামিম, সাকিবরা।

মঙ্গলবার প্রথম ম্যাচে টস জেতার পর সবাইকে চমকে দিয়ে মাশরাফি জানিয়ে দেন, এটাই তার শেষ আন্তর্জাতিক টি ২০ সিরিজ। যতদিন শরীর সায় দেবে, ওয়ানডে ক্রিকেট চালিয়ে যাবেন। কিন্তু টি ২০তে তার পথচলা শেষ হচ্ছে আজই। একদিন সবাইকেই থামতে হয়। কিন্তু বিতর্কের মেঘ জমেছে অবসরের ঘোষণাটা এমন আচমকা আসায়।

মাশরাফি বলেছেন, তরুণদের সুযোগ দিতেই অবসরের সিদ্ধান্ত। টি ২০ ক্রিকেট নাকি একেবারেই টানে না তাকে। সবই ঠিক আছে। কিন্তু জোর গুঞ্জন, টি ২০ থেকে মাশরাফির অবসর নিয়ে পর্দার আড়ালে অনেক কিছুই ঘটেছে। কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে ও বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসানের নাকি বড় ভূমিকা আছে এখানে। তিন সংস্করণে তিন অধিনায়ক চায় বিসিবি। অতীতে সতীর্থদের জন্য বোর্ডের সঙ্গে বহুবার লড়াই করেছেন মাশরাফি। কিন্তু নিজের ক্ষেত্রে হাঁটলেন অন্য পথে।
প্রথম ম্যাচের পর নিজের অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক এড়াতে সবসময় দেশের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দেয়ার কথা জানান মাশরাফি, ‘আমার মনে হয় এই সময় বিতর্ক তৈরি না করে আমাদের ক্রিকেটের উন্নতির জন্য কাজ করা উচিত। আমাদের ক্রিকেট এগিয়ে যাক। আমার মনে হয় না যে, এসব নিয়ে আলোচনা করার কিছু আছে। একটা ম্যাচ জিতলে সেটা বাংলাদেশ জেতে। এখানে মাশরাফির চেয়ে দেশ অনেক বড়।’

সতীর্থদের কাছে মাশরাফি নিজেই কিন্তু অনেক বড় কিছু। প্রথম ম্যাচের আগে তার অবসরের সিদ্ধান্তটা বিশাল ধাক্কা হয়ে এসেছিল দলের সবার জন্য। স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলেন সবাই। মাঠে এসে আর উজ্জীবিত লড়াই করতে পারেননি তারা। কিন্তু আজ মাশরাফির বিদায়টা রাঙিয়ে রাখার শপথ করেই মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

বুধবার কলম্বোর টিম হোটেলে দলের প্রতিনিধি হিসেবে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সেটাই জানালেন তরুণ ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেন, ‘সিরিজ বাঁচাতে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। আমি ব্যক্তিগতভাবে বলব, আমরা দ্বিতীয় টি ২০ ম্যাচটা খেলব শুধু মাশরাফি ভাইয়ের জন্য। আমরা সবাই চাইব জিতে তাকে বিদায়ী উপহার দিতে। আমাদের বড় ভাই বলেন, অভিভাবক বলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এই কিছু দিনেই তার কাছ থেকে অনেক কিছু পেয়েছি। তারপরও মনে হয়, তার কাছ থেকে আরও অনেক কিছু নেয়ার আছে। মাশরাফি ভাইকে ভীষণ মিস করব।’

মাশরাফিকে নিয়ে তরুণ মোসাদ্দেকের চেয়ে কম আপ্লুত নন দলের অন্যতম স্তম্ভ তামিম ইকবাল, ‘মাশরাফি ভাই উদাহরণ রেখে গেছেন কীভাবে একটি পরিবারের মতো করে ড্রিসিংরুম পরিচালনা করতে হয় এবং একই সময়ে ফল পাওয়া যায়। ব্যক্তি হিসেবে তিনি আমার কাছে জীবন্ত কিংবদন্তি। আমরা যখন সিরিজের শেষ ম্যাচে শ্রীলংকার মোকাবেলা করব, মূল লক্ষ্য থাকবে মাশরাফি ভাই যেন মাথা উঁচু করেই টি ২০ ক্যারিয়ার শেষ করতে পারেন।’

টি ২০ তে সবমিলিয়ে টানা আট ম্যাচে হারা বাংলাদেশ দলের জন্য আজ এটাই সবচেয়ে বড় প্রেরণা।