‘মহাকাশ’ থেকে পরমাণু হামলার পরিকল্পনা রাশিয়ার

0
947

1475585424_21আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পরমাণু অস্ত্র নিয়ে গবেষণা চলছে বিভিন্ন দেশে। এবার মহাকাশ থেকে পরমাণু হামলা চালানোর ব্যবস্থা করছে রাশিয়া। শুনলে মনে হতে পারে আশির দশকের মাঝামাঝি ‘ঠাণ্ডা যুদ্ধ’ নিয়ে তৈরি কোনো হলিউড মুভির চিত্রনাট্য। কিন্তু রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এই পরিকল্পনা একেবারে বাস্তব।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা বিজ্ঞানীরাই জানাচ্ছেন সেই খবর। মহাকাশ থেকে পরমাণু হামলা চালানোর জন্য বিশেষ যুদ্ধযান তৈরি করছে মস্কো। এই খবর নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে। রুশ মিলিটারি অ্যাকাডেমির স্ট্র্যাটেজিক মিসাইল ফোর্স বিষয়ের অধ্যাপক তথা রাশিয়ার এই হাই-প্রোফাইল প্রকল্পের অন্যতম প্রধান কর্তা কর্নেল অ্যালেক্সেই সোলোদোভনিকভ জানিয়েছেন, যে যুদ্ধযানটি তৈরি করছে রাশিয়া সেটি একাধারে যুদ্ধবিমান এবং মহাকাশযান। এটির নাম দেয়া হয়েছে ‘স্ট্র্যাটেজিক বম্বার’।

কর্নেল সোলোদোভনিকভ জানিয়েছে কথায়, স্ট্র্যাটেজিক বম্বার সাধারণ বিমানঘাঁটি বা রানওয়ে থেকেই উড়বে। যতক্ষণ সেটি বায়ুমণ্ডলের মধ্যে থাকবে, ততক্ষণ কেরোসিনে চলবে। বায়ুমণ্ডল ছাড়িয়ে মহাকাশে ঢুকে যাওয়ার সময় কেরোসিনের বদলে মিথেন-অক্সিজেন জ্বালানি ব্যবহার করতে শুরু করবে এই স্ট্র্যাটেজিক বম্বারের ইঞ্জিন। পাক-ডিএ নামে এই স্ট্র্যাটেজিক বম্বারের উপস্থিতি কোনো র‍্যাডারে ধরা পড়বে না। পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে পরমাণু বোমা ফেলতে পারবে পাক-ডিএ। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় কিন্তু এখনই এই হাই-প্রোফাইল প্রকল্প নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাইছে না।

কিন্তু রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক মিসাইল ফোর্সের কম্যান্ডার জেনারেল সেরগেই কারাকায়েভ জানাচ্ছেন, পাক-ডিএ স্ট্র্যাটেজিক বম্বারের ইঞ্জিনের মডেল ইতিমধ্যেই তৈরি হয়ে গেছে এবং পরীক্ষিতও হয়েছে। পরবর্তী দু’বছর প্রকল্পের বিজ্ঞানীরা হার্ডওয়্যারের উপর কাজ করবেন। ২০২০ সালের মধ্যে রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক বম্বার তৈরি হয়ে যাবে বলেও কারাকায়েভ মনে করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here