মসুলে আইএসের জ্যেষ্ঠ ধর্মীয় নেতা নিহত

0
121

926d734b327ca90bfdeb9f2b118f9b8f-58f1b564121bcআন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম নগরী মসুলে বিমান হামলায় মধপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) এক জ্যেষ্ঠ ধর্মীয় নেতা নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার শহরের পশ্চিমাঞ্চলে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট ওই বিমান হামলা চালায়। ইরাকি বাহিনীর বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

মসুলের পুরনো শহরে মার্কিন নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক জোটের বিমান হামলায় আইএসের সর্বোচ্চ ধর্মীয় ফতোয়া দানকারী আব্দুল্লাহ আল-বাদরানি নিহত হয়। উত্তর ইরাক জুড়ে চালানো বহু গণহত্যা ও গণনিপীড়নের মূল পরিকল্পনাকারী আল-বাদরানি অনেক জঙ্গির কাছে আবু আইয়ুব আল-আতার নামে পরিচিত। ইরাকি বেসামরিক নাগরিকদের নির্যাতন, হত্যা ও ধর্ষণের নির্দেশ জারি করায় এ জঙ্গি নেতার বিশেষ অবদান রয়েছে। ইয়াজিদি সম্প্রদায়ের পুরুষদের হত্যা করে নারীদের নির্যাতনের পক্ষে ফতোয়া দিয়েছিলেন তিনি।

২০১৪ সালের জুনে আইএস জঙ্গিরা মসুল নগরী দখল করে নেয়। তখন থেকেই কথিত খেলাফতের নামে ব্যাপক মানবতাবিরোধী অপরাধ চালায় আইএস জঙ্গিরা। এতে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে আল-আতার ছিল অন্যতম।

উল্লেখ্য, গত বছর অক্টোবরে মসুল উদ্ধারে অভিযান শুরু করে ইরাকি বাহিনী। প্রায় ১০০ দিনের লড়াই শেষে চলতি বছরের জানুয়ারিতে পূর্ব মসুল আইএসের দখল থেকে মুক্ত হয়। এরপর গত ফেব্রুয়ারিতে টাইগ্রিস নদীর পশ্চিম ভাগে অভিযান শুরু করে ইরাকি বাহিনী। এতে আইএস আরও দুর্বল হয়ে পড়ে।

বর্তমানে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের হাত থেকে মসুলের পুরনো শহরে আল-নুরি মসজিদ পুনর্দখল করতে অভিযান চালাচ্ছে ইরাকি বাহিনী। ২০১৪ সালে এই মসজিদ থেকেই কথিত খেলাফতের ঘোষণা দিয়েছিলেন আইএস প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here