ভিডিও কনফারেন্সে শুনানিতে অংশ নিলেন আকায়েদ

0
44

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে একটি টার্মিনালে পাইপ বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো বাংলাদেশি অভিবাসী তরুণ আকায়েদ উল্লাহ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আদালতে শুনানিতে অংশ নিয়েছেন।

বুধবার নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিস্ফোরণে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকায় যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় বুধবার সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের ফেডারেল ডিস্ট্রিক্ট কোর্টের শুনানিতে অংশ নেন। এ সময় আদালতের জজ ক্যাথেরিন এইচ পার্কার তাকে জামিনবিহীন আটকের নির্দেশ দেন। এ ছাড়া ১৩ জানুয়ারি মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেন বিচারক।

হাসপাতালের বিছানায় শুয়েই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শুনানিতে অংশ নেওয়া আকায়েদ বিচারককে দেখতে পারছে কি-না শুরুতেই তা জানতে চান বিচারক। জবাবে আকায়েদ জানান, তিনি তাকে [বিচারক] দেখতে পারছেন।

শুনানি চলাকালে বিচারক ক্যাথেরিন পার্কার আকায়েদকে তার অধিকার পড়ে শোনান। জবাবে মাথা নেড়ে আকায়েদ বুঝিয়ে দেয়, সে বুঝতে পেরেছে।

পরে বিচারক উপস্থিত আইনজীবীদের জানান, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অভিযুক্ত আকায়েদ জামিন পাবে না। তার আইনজীবীও তা মেনে নেন। অবশ্য ভবিষ্যতে আকায়েদের আইনজীবী চাইলে জামিন চেয়ে আবেদন করতে পারবে বলেও উল্লেখ করেন বিচারক। এছাড়া আকায়েদের আর্থিক সামর্থ্য না থাকায় আদালত পাবলিক ডিফেন্ডার এমি গ্যালিশিওকে তার অ্যাটর্নি হিসেবে নিয়োগ দেন।

এর আগে মঙ্গলবার আকায়েদের বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ, যেখানে গণবিধ্বংসী অস্ত্রের ব্যবহার, ইসলামিক স্টেটকে উপকরণগত সহায়তা প্রদান ও জনসাধারণে ব্যবহারের স্থানে বোমা বিস্ফোরণসহ তার বিরুদ্ধে পাঁচটি অভিযোগ উত্থাপন করা হয়। এসব অভিযোগের বেশিরভাগেরই সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

প্রসঙ্গত, গত ১১ ডিসেম্বর ম্যানহাটনের একটি টার্মিনালে পাইপ বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় আকায়েদ। এতে আকায়েদসহ আরও তিনজন আহত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here