ভিক্ষুকের টাকায় বিএমডব্লিউ গাড়ি!

0
18

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: ভিক্ষুককে সাহায্য করার নামে এক দম্পতির বিরুদ্ধে ৩ লাখ ডলার হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভিক্ষুকের সততায় উদ্বুদ্ধ হয়ে তাকে সাহায্যের জন্য ৪ লাখ ডলার ফান্ডের ব্যবস্থা করেছিলেন ওই দম্পতি।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত ওই টাকা হস্তান্তর না করে নিজেরাই আত্মসাৎ করেন। যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

খবরে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে ওই ভিক্ষুকের সঙ্গে পরিচয় হয় কেট ম্যাকক্লুলা নামে এক নারীর। ফিডেলফিয়ার আই-৯৫ রাস্তায় গভীর রাতে তার গাড়ির জ্বালানি শেষ হয়ে গিয়েছিল। সঙ্গে কোনো টাকাও ছিল না। গভীর রাতে তিনি রাস্তায় মাঝে কী করবেন বুঝে উঠতে পারছিলেন না।

এমন সময় সেখানে হাজির হন জনি ববিট নামে ওই ভিক্ষুক। কেটকে গাড়ির দরজা বন্ধ করে ভিতরে বসতে বলেন ববিট। সারা দিন ভিক্ষার সব উপার্জন দিয়ে সাহায্য করেন কেটকে। মোট ২০ ডলার দিয়ে নিজেই কেটের গাড়ির জন্য জ্বালানি কিনে আনেন।

ববিটের সেই মহৎ হৃদয়ের কথা ভোলেননি কেটও। পরে স্বামী মার্ক ডি আমিকোকে নিয়ে ববিটের কাছে যান। ববিটকে সাহায্য করার জন্য তারা একটি ফান্ডের ব্যবস্থা করেন। ববিটকে সাহায্য করতে ইচ্ছুক যে কেউই এই ফান্ডের মাধ্যমে টাকা পৌঁছে দিতে পারেন তার কাছে।

ববিটের এই গল্প কয়েকটি সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়। তার পর হু হু করে বাড়তে থাকে ফান্ডমানি। কয়েক মাসের মধ্যেই ববিটের নামে ৪ লাখ ২ হাজার ডলার অর্থ সাহায্য জমা হয় ফান্ডে।

কিন্তু গল্পটা এখন পাল্টে গিয়েছে। যাকে সাহায্য করার জন্য ফান্ডের ব্যবস্থা করেছিলেন দম্পতি, সেই ববিটই এখন উল্টো দম্পতির বিরুদ্ধেই টাকা লোপাটের অভিযোগ তুলেছেন।

ববিটের অভিযোগ, ওই টাকায় তাকে যা যা সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন দম্পতি তা আদৌ তারা করেননি। একটি ট্রাক, বাড়ি সবই তাকে কিনে দেওয়ার কথা বলেছিলেন। কিন্তু বাস্তবে নিজেরাই বিএমডব্লিউ গাড়ি কেনেন।

কিছুদিন আগে নতুন বিএমডব্লিউ নিয়ে ছুটি কাটাতে ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডা এবং লাস ভেগাসেও যান বলে অভিযোগ তার। আর তার জন্য নিজেদের বাড়ির গ্যারেজে থাকার ব্যবস্থা করেন ওই দম্পতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here