ব্যতিক্রমী ফার্স্ট লেডি

0
102

untitled-5_291286আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নিজের চেয়ে ২৫ বছরের ছোট স্বামী ইমানুয়েল মাক্রোন এখন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। সে হিসেবে ৬৪ বছর বয়সী ব্রিজিত্তে ত্রনিউ হতে যাচ্ছেন দেশটির নতুন ফার্স্ট লেডি। নতুন এই প্রাপ্তিতে অবশ্যই খুশি তিনি। লন্ডনের ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে ফার্স্ট লেডি হিসেবে তার ভবিষ্যৎ কর্মকাণ্ড কী হবে, তার কিছুটা আভাসও দেওয়া হয়েছে। তিনি আসলে গতানুগতিক ফার্স্ট লেডি না হয়ে একজন ব্যতিক্রমী ফার্স্ট লেডি হওয়ার ইচ্ছার কথা জানান।

ব্রিজিত্তে বলেছেন, তিনি ফার্স্ট লেডি হিসেবে অলস সময় কাটাবেন না। ফ্রান্সের শিক্ষা ব্যবস্থা-সংক্রান্ত ব্যাপারে কাজ করবেন। ফ্রান্সের সরকারে তিনি অবৈতনিক দায়িত্ব হিসেবে শিক্ষার সংস্কার ও উন্নয়নের ব্যাপারে তার উৎসাহ ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাবেন। এ ছাড়া স্বামীর সরকারেও তিনি বিভিন্ন বিষয়ে তাকে সহায়তা করতে চান, এমন আগ্রহের কথাও বলেছেন।

ব্রিজিত্তে এখন আট নাতিপুতির নানি-দাদি। তাকে নিয়ে আগ্রহ চারদিকে। বলা হচ্ছে, তিনি অন্যদের মতো নন। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ফার্স্টর্ লেডি মিশেল ওবামার মতো জোরালো ভূমিকা রাখবেন তিনি। বিশেষ করে শিক্ষার সঙ্গে তার সম্পর্ক থাকায় তিনি এ খাতে নজর দিতে পারেন।

তবে শিক্ষাক্ষেত্রের বাইরেও কাজ করবেন ব্রিজিত্তে। প্রতিবন্ধী, ছিন্নমূল ও সমাজে সুবিধাবঞ্চিতদের ব্যাপারেও কাজ করার আগ্রহ রয়েছে তার। তার এসব কর্মকাণ্ড পরিচালিত হবে রাজনীতির বাইরে। এতে কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদনা থাকবে না।

মোটকথা, ফ্রান্সের নতুন সরকারে ব্রিজিত্তে তার শিক্ষা, বয়স ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে ব্যতিক্রমধর্মী ভূমিকা রাখতে আগ্রহী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here