বেপরোয়া ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে নেওয়া হবে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের

0
123
005_287088নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগের ভেতরে কিছু নেতা বিদ্রোহে উস্কানি দিয়ে বিশ্বাসঘাতকতা করছে। এসব উস্কানিদাতার ব্যপারে তথ্য আছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে। সময় হলেই টের পাবেন এসব নেতারা। তাই সময় থাকতে ভালো হয়ে যান।’

শনিবার নগরীর কিং অব চিটাগাং কমিউনিটি সেন্টারে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘ছাত্রলীগকে স্বার্থ রক্ষার পাহারাদার করবেন না। বেপরোয়া ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে নেওয়া হবে কঠিন ও কঠোর ব্যবস্থা। আমি আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছে অনুরোধ করব, ছাত্রলীগকে স্বার্থরক্ষার পাহারাদার হিসেবে ব্যবহার করবেন না। তাতে আপনাদেরও ক্ষতি হবে, ছাত্রলীগেরও ক্ষতি হবে। ঘরের মধ্যে আর ঘর করবেন না। খারাপ খবরের শিরোনাম হওয়া যাবে না। সুনামের ধারায় ফিরে আসুন। তা না হলে আরও কঠিন, আরও কঠোর ব্যবস্থা নেব।’

সভায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়, এমন কোনো কাজ হলে সাংগঠনিকভাবে, প্রশাসনিকভাবে আমরা কাউকে রেহাই দেব না। আমাদের এত উন্নয়ন, এত অর্জন, এত র্কীর্তি, এত খ্যাতি বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কীর্তিকে গুটিকয়েক অপকর্মকারীদের হাতে জিম্মি হতে দিতে পারি না।’

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের প্রথম সহ-সভাপতি ও রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ সালামের পরিচালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, সন্দ্বীপের সাংসদ মাহফুজুর রহমান মিতা, সীতাকুণ্ডের সংসদ সদস্য দিদারুল আলম। এছাড়াও তৃণমূলের ২৫ প্রতিনিধি বক্তব্য রাখেন।

এর আগে সকাল থেকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা থেকে বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে আসতে থাকে নেতাকর্মীরা। প্রায় তিন হাজার প্রতিনিধি এতে অংশগ্রহণ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here