বুরুন্ডিতে বাড়ি ঢুকে ২৬ জনকে হত্যা

0
36

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: পূর্ব আফ্রিকার দেশ বুরুন্ডিতে সশস্ত্র হামলায় অন্তত ২৬ জন নিহত হয়েছেন।

বিতর্কিত গণভোটকে সামনে রেখে দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় সিবিটোক প্রদেশের একটি গ্রামে এ হামলা হয় বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, শুক্রবার গভীর রাতে অস্ত্রধারীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে গুলি ছুড়ে, ছুড়ি নিয়ে কুপিয়ে মানুষকে হত্যার পর ঘরবাড়ি পুড়িয়ে সীমান্ত দিয়ে পালিয়ে যায়।

আগামী ১৭ মে দেশটিতে সাংবিধানিক গণভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এর মাধ্যমে ইতিবাচক ফল এলে ২০৩৪ সাল পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে বর্তমানে ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট এনকুরুনজিজার মেয়াদ।

দেশটির প্রধান দুটি গোত্র হুতু এবং তুতসিদের মধ্যে ১৯৬০ এর দশক থেকে চলতে থাকা জাতিগত দাঙ্গায় কয়েক হাজার মানুষের মৃত্যু হয়।

শেষপর্যন্ত ২০০১ সালে স্বাক্ষরিত একটি শান্তিচুক্তির মাধ্যমে দেশটিতে স্থিতিশীলতা ফিরে আসে। এরপর ২০০৫ সালে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণ করেন এনকুরুনজিজা।

বুরুন্ডির নিরাপত্তামন্ত্রী অ্যালাইন গুলেমি হামলার ঘটনাকে ‘সন্ত্রাসী’ উল্লেখ করে এক বিবৃতিতে বলেন, সন্ত্রাসীর কঙ্গো থেকে এসে হামলার পর আবার কঙ্গোতে ফিরে গেছে।

তিনি বলেন, ওই মানুষগুলোকে গুলি করে এবং পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। অনেকেই আহত হয়েছেন।

গণভোটে ‘হ্যাঁ’ ভোট পেয়ে জয়ী হলে ২০২০ সাল থেকে আরও দুই মেয়াদে ৩৪ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় বসার সুযোগ পাবেন এনকুরুনজিজা। তবে এর আগেই শুরু হওয়া অস্থিতিশীলতা জনমনে ভীতির সৃষ্টি করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here