বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার চান প্রধানমন্ত্রী

0
85

584ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা-লন্ডন (যুক্তরাজ্য) কার্গো ফ্লাইট চলাচলের সাময়িক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য ব্রিটিশ সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এই নিষেধাজ্ঞার ফলে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা ব্যাপক ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

ব্রিটেনের এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল বিষয়ক মন্ত্রী অলোক শর্মা শনিবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে প্রধানমন্ত্রী এ আহবান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সম্প্রতি হিথ্রো বিমানবন্দরে এ ধরনের নিরাপত্তা ত্রুটি পাওয়া গেছে। ব্রিটিশ সরকার গতবছর মার্চে নিরাপত্তা ঘাটতির কারণ দেখিয়ে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ঢাকা থেকে যুক্তরাজ্যে কার্গো ফ্লাইট চলাচল নিষিদ্ধ করে।

বৈঠকের পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বলেন, প্রধানমন্ত্রী এবং ব্রিটিশ মন্ত্রী দু’দেশের মধ্যে চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের বিষয়ে গভীর সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং আশা প্রকাশ করে বলেন, এই সম্পর্ক আগামী দিনে আরো জোরদার হবে।

প্রেস সচিব বলেন, তারা পারস্পরিক স্বার্থে বিশেষ করে বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ও অবকাঠামো উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। রোহিঙ্গা প্রসঙ্গ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যু সমাধানে এবং তাদের জন্য নিরাপদ ও স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশে অস্থায়ী পুনর্বাসনে ব্রিটেনসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছেন।

শেখ হাসিনা ব্রিটিশ মন্ত্রীকে অবহিত করেন যে, নিবন্ধিত ও অনিবন্ধিত ৪ লাখের বেশি মায়ানমারের নাগরিক অমানবিক অবস্থায় বাংলাদেশে বাস করছে। সরকার তাদের ভালো পরিবেশে নিরাপদ এলাকায় পুনর্বাসনের উদ্যোগ নিয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, এই সমস্যার সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সহযোগিতায় এগিয়ে আসতে হবে। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে তাঁর সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতিতে দৃঢ় অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যেই গত বছর হলি আর্টিসান বেকারিকে হামলাকারী জঙ্গিদের বিরুদ্ধে তাঁর সরকার সক্ষমতার প্রমাণ দিয়েছে। তিনি বলেন, হলি আর্টিসানে হামলাকারী জঙ্গিদের অস্ত্র ও গোলাবারুদ সরবরাহকারীদের ইতোমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

ব্রিটিশ মন্ত্রী বলেন, ঢাকা থেকে যুক্তরাজ্যে পুনরায় কার্গো ফ্লাইট চালুর বিষয় দু’দেশের বিশেষজ্ঞরা একত্রে বসে সুরাহা করবে। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, ব্রিটেনে বাংলাদেশের হাইকমিশনার নজমুল কাউনাইন এবং বাংলাদেশে ব্রিটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেক এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here