বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশনে ত্রুটিপূর্ণ সিস্টেম: বিপাকে সাবস্ক্রাইবাররা

0
234

SIMবিটিআরসি সম্প্রতি মোবাইল সাবস্ক্রাইবারদের এসএমএস এর মাধ্যমে অনাকাঙ্ক্ষিত সিম এবং রিম বন্ধ করে দেয়ার আহবান জানায়। এসএমএস এ বলা হয়, আপনার নামে অনাকাঙ্ক্ষিত সিম এবং রিম আছে কিনা দেখে বন্ধ করে দেয়ার জন্য নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করুন। আর এ নিয়ে শুরু হয় বিভ্রান্তি। কেননা যেখানে একজনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট রেকর্ড এর ভিত্তিতে (যা অন্যের সাথে মিলে যাওয়া সম্ভব নয়) রেজিস্ট্রেশনের পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়েছে সেখানে কিভাবে আরেকজনের নামে সিম বা রিম নিবন্ধিত হয়েছে সে বিষয়ে টেক্সট এ কিছু বলা হয়নাই।

আবার অনেক ব্যবহারকারি ভিন্ন তথ্যের এসএমএস পেয়েছেন যেখানে বলা হয়েছে সাবস্ক্রাইবারের সিম নিবন্ধনের নাম্বার দিয়ে দেয়া হয়েছে। নাম গোপন রাখার শর্তে বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা যায়, বায়োমেট্রিক নিবন্ধন জালিয়াতি বিষয়টি সবার সামনে চলে আসলে বিটিআরসি এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে উদ্যোগী হন। টেলিকম রেগুলেটর, সাবস্ক্রাইবারদের অপারেটরদের কাস্টমার কেয়ারে গিয়ে তাদের এনআইডি নাম্বার দিয়ে অননুমোদিত সিম রয়েছে কিনা জানার জন্য আগ্রহী করার পরিকল্পনা করেন।

বায়োমেট্রিক নিবন্ধন জালিয়াতির পেছনে রয়েছে সিম এবং রিম বিক্রেতারা কেননা এরাই বায়োমেট্রিক সিম রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ায় এরাই সহায়তা করেছে। খুচরা বিক্রেতারা শিথিল পর্যবেক্ষণ ও জবাবদিহিতার অভাবে অননুমোদিত সিম নিবন্ধনের এর সুবিধা গ্রহণ করেছে। অপর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ এবং বায়োমেট্রিক ডিভাইসের নির্বিচারে হস্তান্তরই বর্তমান অবস্থার জন্য দায়ি।

বাংলাদেশের মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব অ্যাসোসিয়েশন এর মহাসচিব নুরুল কবির জানান, বিটিআরসির সব অপারেটরদের সচেতনতা তৈরি করতে এই এসএমএস পাঠাতে অনুরোধ জানায়। আর এক্ষেত্রে যদি সাবস্ক্রাইবার দেখেন তার নামে অন্য সিম নিবন্ধিত রয়েছে তাহলে তারা একটি অভিযোগ দায়ের করতে পারবে। আর অননুমোদিত ব্যক্তি দ্বারা সিম নিবন্ধন হয়ে গিয়ে থাকলে সেই সিমটি ব্লক করে দেয়া হবে।

এতকিছুর পরেও কিছু গ্রাহক অভিযোগ করে বলেন, তারা কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে গিয়েও অননুমোদিত সিম নিবন্ধনের জন্য কোনো সমাধান পায় নি। প্রাইভেট সেক্টরে কাজ করে এমন একজন জানান, এসএমএস পেয়ে তার এনআইডি নাম্বার দিয়ে অন্য সিম নিবন্ধিত আছে কিনা জানতে কাস্টমার কেয়ারে গেলে সেখানকার প্রতিনিধিরা তাকে সমাধানের জন্য ইলেকশন কমিশনে যোগাযোগ করার জন্য বলে। বিটিআরসি এক অননুমোদিত সিম চিহ্নিত কিভাবে করা যাবে তা পরিষ্কারভাবে ব্যাখ্যা দেয়া উচিত।

এ বিষয়ে বিটিআরসির সচিব মো. সারওয়ার আলম জানান, এটা গ্রাহকদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করা জন্যই করা হয়েছে। তাছাড়া সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগ এই ইস্যুতে আন্তরিকভাবে কাজ করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here