বাবরি মসজিদ ধ্বংসে বিজেপি নেতা আদভানি অভিযুক্ত

0
83

mus_48400_1496154178আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ষোড়শ শতাব্দীর ঐতিহ্যবাহী বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনায় লালকৃষ্ণ আদভানিসহ ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির ঊর্ধ্বতন নেতাদের বিচার শুরু হয়েছে।

ভারতের একটি বিশেষ আদালত মঙ্গলবার সাবেক বিজেপি প্রধান আদভানিসহ কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে।

এর মধ্যে প্রবীণ বিজেপি নেতা মুরিলি মনোহর জোশি এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উমা ভারতীও রয়েছেন।

অভিযোগপত্রে বলা হয়, ১৯৯২ সালে ওই বিজেপি নেতাদের উস্কানিমূলক বক্তব্য অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ভাঙ্গার জন্য হিন্দু উগ্রবাদীদের উৎসাহিত করেছিল।

এর পরে এ নিয়ে দাঙ্গা প্রায় দুই হাজার মানুষ মারা যায়।

হিন্দুদের দাবি, মসজিদটি তাদের সবচেয়ে সম্মানিত দেবতা রামের জন্মস্থান এবং এটি ষোড়শ শতকে এক মুসলিম শাসক এখানকার হিন্দু মন্দির ধ্বংস করে তার ওপর ওই মসজিদ নির্মাণ করেছেন।

ভারতের সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) সব সময়ই বলে আসছে পরিকল্পিতভাবে বাররি মসজিদটি ধ্বংস করা হয়।

গত এপ্রিলে সুপ্রিম কোর্টের আদেশের পর এ বিশেষ আদালত গঠন করা হয়। আদালত বলেছে, আগামী দুই বছরের মধ্যে এ বিচার কাজ সম্পন্ন করা হবে।

এছাড়া মঙ্গলবার আদালতে হাজির হওয়া ওই তিন বিজেপি নেতাকে কোনো অবস্থাতেই ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দেয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আদালত।

হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার পর ২০১১ সাল থেকে সুপ্রিম কোর্টে এ মামলাটি চলছে। আদালত বিতর্কিত জায়গাটির দুই-তৃতীয়াংশ হিন্দু গোষ্ঠীকে এবং অবশিষ্ট অংশ মুসলমানদের কাছে হস্তান্তরের রায় দিয়েছিল।

কিন্তু হিন্দুরা এ স্থানে একটি মন্দির নির্মাণ করতে চাচ্ছে আর মুসলমানরা চাচ্ছে একটি নতুন মসজিদ তৈরি করতে।

এ বছরের শুরুতে প্রধান বিচারপতি জে এস খেহার দুই সম্প্রদায়কে আলোচনার মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তি করার আহ্বান জানান এবং দুপক্ষের মধ্যে মধ্যে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করার প্রস্তাবও দেন।

দীর্ঘসূত্রিতার কারণে ইতোমধ্যে মামলাটির অনেক বাদী মারা গেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here