বাংলাদেশে আইসিটি’র প্রশংসায় সৌদি মন্ত্রী

0
339

unnamedসৌদি করেসপন্ডেন্ট: সৌদি আরবের কমিউনিকেশন অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি মন্ত্রী ডঃ মুহাম্মাদ আল-সুয়াইল বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের প্রশংসা করেছেন। বিশেষ করে আইসিটি খাতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়েছে। সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ মন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে তিনি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ গত বছরের অক্টোবরে বাংলাদেশের আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সফরটি ছিল আইসিটি খাতে দুই দেশের মধ্যে আরো সহযোগিতার প্ল্যাটফর্ম তৈরির- একথা স্মরণ করিয়ে দেন। অভিজ্ঞতা বিনিময়, প্রশিক্ষণ এবং উভয় দেশের নাগরিকদের কল্যাণে আইসিটি পেশাদারদের গবেষণার মাধ্যমে এই খাতে সহযোগিতা জোরদারের আলোচনা করা হয়।

”ডিজিটাল বাংলাদেশ ” শ্লোগান নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ আইসিটি খাতে উন্নতির জন্য সকল ব্যবস্হা নেওয়া হয়েছে। সাফল্যের অংশীদার হতে আইসিটি শিল্পে সৌদি সরকারের সহযোগিতা কামনা করা হয়। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার এই দূরদৃষ্টি প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের। রাষ্ট্রদূত, সৌদি মন্ত্রীকে অবহিত করেন যে, বাংলাদেশ আইসিটি শিল্পের জন্য সম্প্রতি চালু হয়েছে হাইটেক পার্ক, সৌদি ও জিসিসি বিনিয়োগকারীদের জন্য এই পার্কে স্থান বরাদ্দ রয়েছে । ‘রূপকল্প ২০৩০’ তুলে ধরে সৌদি মন্ত্রী বলেন, উভয় দেশের আইটি পেশাদারদের মধ্যে নিয়মিত সহযোগিতার ব্যবস্হা থাকলে এই খাতে উন্নতি লাভ সম্ভব ।

সৌদি আইসিটি মন্ত্রী রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন যে, তিনি বাংলাদেশের আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে ঢাকায় ১৯-২১ অক্টোবর নির্ধারিত ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৬ আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিতে চেয়েছিলেন। তবে সৌদি যোগাযোগ এবং ইনফরমেশন টেকনোলজি মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ড. খালেদ ইবনে ফারেস আলওতাইবি ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন ।

সৌদি মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, দুই দেশের মধ্যে আইসিটি সহযোগিতার ওপর চূড়ান্ত সমঝোতা স্মারক শীঘ্রই স্বাক্ষরিত হবে, এমনকি তা আগামী সপ্তাহে স্বাক্ষরিত হতে পারে ।

এসময় রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের মিশন উপ-প্রধান ড. মো: নজরুল ইসলাম, কাউন্সেলর (অর্থনৈতিক) ডঃ আবুল হাসান ।

LEAVE A REPLY