বাংলাদেশেও ফিক্সিং করেছিল অস্ট্রেলিয়া!

0
17

স্পোর্টস ডেস্ক: বলা হয়ে থাকে ক্রিকেট ভদ্র লোকের খেলা। কিন্তু এই ভদ্র লোকের খেলা ক্রিকেট কলঙ্কিত হয়েছে ‘ম্যাচ ফিক্সিং’ কাণ্ডে। সাম্প্রতিক সময়ের বেশ আলোচিত ইস্যু ফিক্সিং।

গত ২৮ মে ফিক্সিং নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আলজাজিরা। কাতারভিত্তিক ওই টেলিভিশন চ্যানেলের সেই তথ্যচিত্রটি প্রকাশের পরই থেকেই হইচই পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট অঙ্গনে।

শুরুতেই জানা গিয়েছিল, ফিক্সিংয়ে অভিযুক্ত ক্রিকেটারদের মধ্যেই রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার দুজন ক্রিকেটার। এবার ধারণা করা হচ্ছে, বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজসহ বেশ কয়েকটি সিরিজে ফিক্সিংয়ে জড়িত ছিলেন দেশটির সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেটাররা।

আলজাজিরা তাদের দ্বিতীয় প্রামাণ্যচিত্র প্রকাশ করার আগে ক্রিকইনফোসহ বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম এমন খবর দিয়েছে।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১১ সালে বেশ কয়েকটি ম্যাচেই ফিক্সিং করেছিলেন অজি ক্রিকেটাররা। আলজাজিরা প্রকাশিতব্য দ্বিতীয় প্রামাণ্যচিত্রে এসব তথ্য উঠে আসবে বলেও জানানো হয়েছে।

এমনকি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও (সিএ) এই ফিক্সিংয়ের অভিযোগের ব্যাপারে অবগত। তবে দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যেই এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

২০১১ সালে বাংলাদেশ সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অংশ নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। মিরপুরের হোম অব ক্রিকেট শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত তিনটি ম্যাচেই জয় পায় অজিরা। কিন্তু ৩-০ ব্যবধানে জয় পাওয়া সেই সিরিজকে ঘিরেই এবার ফিক্সিংয়ের অভিযোগ উঠেছে অজি ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে।

বাংলাদেশ সফর ছাড়াও ওই বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপে অংশ নেয় অস্ট্রেলিয়া। এ ছাড়াও শ্রীলঙ্কা সফর ও দক্ষিণ আফ্রিকা সফর করে অজিরা। এরপর নিজেদের মাঠে নিউজিল্যান্ড ও ভারতের বিপক্ষেও দ্বিপাক্ষিক সিরিজে মাঠে নামে দেশটি।

বিশ্বকাপসহ বাকি সিরিজগুলোও রয়েছে সন্দেহের তালিকায়। তবে কোনো সিরিজ সম্পর্কে এখন পর্যন্ত সুনির্দিষ্টভাবে অভিযোগ করা হয়নি।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এক বিবৃতিতে দাবি করছে, প্রথম তথ্যচিত্রটি প্রচারিত হওয়ার পরই তাদের পক্ষ থেকে আলজাজিরার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু সংবাদমাধ্যমটি কোনো তথ্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here