ফ্লোরিডায় কারিগর প্রোডাকশনের বর্ণাঢ্য বর্ষবরণ

0
64

গত ১৫ এপ্রিল বাংলা নববর্ষকে বরণ করতে সাউথ ফ্লোরিডার কারিগর প্রোডাকশন রয়েল পাম বীচ পার্কে আয়োজন করেছিলো এক বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। প্রথমেই বাংলা ১৪২৫ সালকে বরণ করার জন্য এক বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়। বিশালকায় চারুকর্ম পুতুল, হাতি, কুমীর, লক্ষ্মীপেঁচা, ঘোড়াসহ বিচিত্র মুখোশ এবং সাজসজ্জ্বা, বাদ্যযন্ত্র ও নৃত্যে মুখরিত হয়ে উঠেছিল অনুষ্ঠান স্থল।

শোভাযাত্রা উদ্বোধনে আবৃতিকার কেয়া রোজারিও বলেন, ‘বাঙ্গালীর সার্বজনীন এই প্রাণের উৎসবে যা কিছু পচা, গলা, অশুভ, অমঙ্গল- তা আমরা বর্জন করি। সকল কূপমণ্ডূকতা – জীর্ণতাকে বুড়া আঙ্গুল দেখিয়ে আজ শুধু ঢাকাতে নয় – বাংলাদেশের আনাচে কানাচে এমন কি বিদেশের মাটিতেও আমরা আয়োজন করছি এই মঙ্গল শোভাযাত্রা’

পরে স্থানীয় শিল্পীদের প্রাণবন্ত অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি দর্শকদের মাতিয়ে রাখে।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন ফ্লোরিডার অন্যান্য সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য একতার, ডায়না ড্যান্স, সোমা দাস ও তার দল, প্রকৃতির নূর। কবিতা আবৃতি করেন ড. সুলতান সালাউদ্দীন, কেয়া রোজারিও, ড. রোকসানা অ্যানি ও মাহবুবুর রহমান, ফ্লোরিডার সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও ফোবানা ২০১৮ – এর চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান।

সঙ্গীত পরিবেশন করেন সামীরা জাহাঙ্গীর, মোফাজ্জল হক রনী, অনীক দে, মাফিয়া রহমান, শিপ্লু রহমান, টিপু আলম ও দেবজ্যোতি সেন। মির্জা আউয়াল ও রোজিনা করিমের দ্বৈত কণ্ঠের গান দর্শকদের মাতিয়ে রাখে। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে পরিবেশিত “যাত্রা” দর্শকদের প্রচুর আনন্দ প্রদান করে। যাত্রায় অভিনয় করেন লাকি, এল্মা, হৃদি, যাহিনা, শাইখ, রিপন, রিমা, অর্ণব ও তাসবিন। ঝড়-বৃষ্টির জন্য অনুষ্ঠানে কিছুটা বিঘ্ন ঘটলেও দর্শক তা উপেক্ষা করে পুরো অনুষ্ঠানটি উপভোগ করে। সামগ্রিক অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনায় ছিলেন নন্দিনী ভৌমিক ও সামিয়া রহমান।

অনুষ্ঠান সহযোগিতায় ছিলেন মীম ও শাইখ। দর্শক জরিপে সাউথ ফ্লোরিডায় এটি একটি ভিন্ন ধর্মী অনুষ্ঠান- যা মানুষকে আনন্দে ভরপুর করে রাখে। পুরো অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কারিগরের পরিচালক টিপু আলম, তাহমিদা আনিস রিমা বিশিশঠ সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও সংগঠক চিত্রা সুলতানা।