ফেসবুকের পর ভিকে থেকেও বাদ মিয়ানমার সেনাপ্রধান

0
16

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়াতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমকে ব্যবহার করছে বৌদ্ধরা।

দেশটির সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংও রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা উসকে দিয়েছেন। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পর তার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয় ফেসবুক।

জনপ্রিয় এ সামাজিকমাধ্যম নিষিদ্ধ হওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আরেকটি মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলেন তিনি। রাশিয়ার সামাজিক নেটওয়ার্ক ভিকনটাকটে (ভিকে) খোলা ওই অ্যাকাউন্টটিও শনিবার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

অ্যাকাউন্ট পরিচালনার শর্ত পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় মিন অং হ্লাইংয়ের বিরুদ্ধে এ পদক্ষেপ নিয়েছে ভিকে কর্তৃপক্ষ। খবর ওয়ালস্ট্রিট জার্নালের।

গত ২৭ আগস্ট মিয়ানমার সেনাপ্রধানকে নিষিদ্ধ করে ফেসবুক। জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে রাখাইনে রোহিঙ্গা সংকটের জন্য তাকে দায়ী করার পর এমন ব্যবস্থা নেয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটি। সেনাপ্রধান ছাড়া আরও ২০ জন বার্মিজ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে নিষিদ্ধ করে তারা। ফেসবুকে নিষিদ্ধ হওয়ার পর টুইটারে আগের তুলনায় তিনগুণ কার্যক্রম দেখান তিনি। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে খুলে ফেলেন ভিকে অ্যাকাউন্ট।

শনিবার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত তার অনুসারী সংখ্যা ছিল প্রায় ৩৭ হাজার। রাশিয়াভিত্তিক জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ভিকের ব্যবহারকারীরা বার্মিজ, রুশ, ইংরেজিসহ বিভিন্ন ভাষায় পোস্ট দিতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here