ফিরে এসো সাদ্দাম!

0
219

134029_164আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বাগদাদের ফিরদদৌস স্কোয়ার থেকে সাদ্দাম হোসেনের মূর্তি ভাঙতে মার্কিন সেনার সঙ্গে হাত লাগিয়েছিলেন কাদিম শরিফ আল জাবৌরি। এখন তিনি সে কাজের জন্য দুঃখ পান। তিনি আবার সেখানে সাদ্দামের মূর্তি প্রতিষ্ঠা করতে চান। দুঃখ করে তিনি বলেন, তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ আর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ব্লেয়ার ইরাকিদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন।

সাদ্দাম পরিবারের মোটরসাইকেল সারাতেন জাবৌরি। পরে তাকে জেলে ভরে সেনা। সাদ্দাম জমানায় তার পরিবারের ১৪–১৫ জনকে ফাঁসি দেয়া হয়। এতকিছুর পরও সেই সাদ্দামকেই আবার প্রতিষ্ঠা করতে চাইছেন জাবৌরি!‌

আসলে নিষ্ঠুর সাদ্দামের শাসন থেকে সে সময় বেরতে চাইছিল ইরাকবাসী। মার্কিন–ব্রিটেন সেনা তাঁদের সামনে আশার আলো দেখায়। ২০০৩ সালে সাদ্দাম জমানার পতনের পর তাই মার্কিন ফৌজকে স্বাগত জানিয়েছিলেন জাবৌরির মতো অনেকেই। অত্যাচারী সাদ্দামের মূর্তি ভেঙেই সেদিন রাগ মিটিয়েছিল বাগদাদবাসী।

এরপর পরিস্থিতি আরো ভয়ানক। ইরাকের একটা বড় অংশ দখল করে নেয় জঙ্গি সংগঠন আইএস। নিরাপত্তার জন্য পরিবারকে নিয়ে বাগদাদ ছাড়েন জাবৌরি। কয়েক লাখ শরণার্থীর সঙ্গে এখন তিনি দিন কাঁটাচ্ছেন লেবাননের বেইরুটের এক ত্রাণ শিবিরে।

একদা কুস্তিগীর ও ভারোত্তলক জাবৌরি সাদ্দাম শাসনে মোটরসাইকেল সারাতে বাধ্য হয়েছিলেন। আর এখন সেই কাজটাই করছেন পেটের তাগিদে। সাদ্দাম জমানার সঙ্গে এখনকার অবস্থার তুলনা টেনে তিনি বলেছেন, ‘‌তখন দুর্নীতি ছিল, হত্যা ছিল, লুঠতরাজ ছিল। সাদ্দাম মানুষ খুন করতেন। কিন্তু এখনকার নৃশংসতার তুলনায় তা নগন্য। সাদ্দাম গিয়েছেন। তার জায়গায় এসেছেন হাজার হাজার সাদ্দাম।’ -নদি।‌

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here