ফিটনেস : অনেক উপকার জলপাই তেলে

0
125

124614Paper_exer39মানুষের শরীরে রোগের অভাব নেই। রোগ যেমন আছে তেমনি আছে তার প্রতিকার।

তবে প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধের পথই উত্তম। জলপাই তেল ব্যবহারে কী কী রোগকে প্রতিরোধ করা যায় আজ আমরা তার কিছুটা জেনে নিই।

ক্যান্সার প্রতিরোধক : কালো জলপাই ‘ই’ ভিটামিনে সমৃদ্ধ। এটা শরীরের চর্বিকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে। শরীরের ডিএনএ সেল নষ্ট হয়ে গেলে ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ আশঙ্কা থেকে রক্ষা করতে পারে জলপাই তেল। এ তেল ব্যবহারে ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ভয় কম থাকে। মাছের তেলেও এ উপকার পাওয়া যায়।

চামড়া ও চুলের স্বাস্থ্য : কালো জলপাই ফ্যাটি এসিড এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ। এতে আছে ভিটামিন ‘ই’। এটা শরীরে যেভাবে প্রয়োগ হোক না কেন এটা আলট্রাভায়োলেট রেডিয়েশন থেকে চামড়াকে রক্ষা করে। যা স্কিন ক্যান্সার থেকে মানুষকে রক্ষা করে। হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধোয়ার পর কয়েক ফোঁটা জলপাই তেল মুখে মাখলে দারুণ উপকার পাওয়া যায়। গোসলের আগেও জলপাই তেল শরীরে মাখালে অনেক ধরনের সমস্যা থেকে চামড়া ভালো থাকে। নিজেকে শক্তসমর্থ ও কর্মক্ষম রাখতে যেমন খাবারের প্রয়োজন, তেমনি চুলের স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য চুলেরও খাবারের প্রয়োজন। চুলের খাবার হিসেবে জলপাই তেল দারুণ কার্যকরী। ডিমের কুসুমের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা জলপাই তেল নিয়ে চুলে ব্যবহার করে ভালো ফল পাওয়া যায়।

আয়রনের ভালো উৎস : কালো জলপাই আয়রনে সমৃদ্ধ। শরীরে আয়রনের অভাব দেখা দিলে আমাদের টিস্যুগুলো পর্যাপ্ত অক্সিজেন পায় না। আর তখনই আমরা শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ি অথবা আমাদের ঠাণ্ডা লাগে। শুধু তা-ই নয়, আয়রন শরীরে শক্তি উৎপাদনের দারুণ এক উৎস। সর্বোপরি শরীরের সব অঙ্গের কাজ সুষ্ঠুরূপে সম্পাদনের জন্য পর্যাপ্ত আয়রন প্রয়োজন।

চোখের উপকারে জলপাই : কালো জলপাই চোখের জন্য দারুণ উপকারী। একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের প্রতিদিন যে পরিমাণ ভিটামিন ‘এ’ প্রয়োজন হয়, তার দশ ভাগের এক ভাগ সহজেই পাওয়া যায় এক কাপ কালো জলাইয়ে। এই পরিমাণ ভিটামিন চোখের স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি। ভিটামিন ‘এ’র অভাব হলে রাতকানা রোগ দেখা দিতে পারে। গ্লুকোমাসহ চোখের অন্য সব রোগ থেকে মুক্ত থাকার জন্য ভিটামিন ‘এ’ দরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here