‘প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে টাকা পাচার হচ্ছে’

0
266

resize_1391701135সাবেক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীও সরকারি দলের সংসদ সদস্য ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর বলেছেন, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির যে খতিয়ান দেখানো হয়েছে তাতে জাতীয় আয়ের শতকরা বিনিয়োগ ২৯. ৮ ভাগ। যা সঞ্চয়ের চেয়ে একভাগ কম। এই টাকা কোথায় গেল- সে হিসাব নেওয়া প্রয়োজন।

আমার ধারণা, এই টাকা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে পাচার হয়েছে। এর হিসাব থাকা দরকার।

সোমবার জাতীয় সংসদে সম্পূরক বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন।

মহিউদ্দিন খান আলমগীর বলেন, অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এ বছরের অভিজ্ঞতার আলোকে আগামী অর্থ বছরের যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন। আগামীতে যাতে এ ধরনের ঘটনা না ঘটে, সেদিকে দৃষ্টি দেবেন।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলেছে আমাদের রফতানিকারকরা তাদের আয়ের এক তৃতীয়াংশ বিদেশে রাখতে পারবে। এর যৌক্তিকতা আমি খুঁজে পাই না। এটা পরিবর্তন হওয়া দরকার।

মহীউদ্দীন খান বলেন, সরকার নিয়ম করেছে, রপ্তানি আয়ের তিন ভাগের এক ভাগ বাইরে বিনিয়োগ করা যাবে। বাস্তবে বিনিয়োগের নামে এই টাকা বাইরে পাচার হয়ে গেছে। তিনি ব্যাংকিং খাতের চুরি ও পুঁজিবাজারের জালিয়াতি রোধেও একটি বিশেষ কমিশন গঠনের দাবি জানান।

স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, ‘মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক (সিএজি) কী করে? তারা সঠিক সময়ে অডিট করে না। সরকারের কোথায় কী অনিয়ম হচ্ছে, সেটা আমরা জানতে পারি পাঁচ-ছয় বছর পরে।’

তিনি আরও বলেন, অভ্যাসগত কারণে মন্ত্রণালয়গুলো বাজেটের অতিরিক্ত ব্যয় করে থাকে। এর কারণ সময়মতো টেন্ডার ডাকা হয় না। বিলম্বে কাজ শুরু করা হয়। ততক্ষণে জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যায়। তার সঙ্গে আছে মন্ত্রণালয়ের অস্বচ্ছতা ও অনিয়ম।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সমালোচনা করে জাসদের মঈন উদ্দীন খান বাদল বলেন, ব্যাংক ও পুঁজিবাজারে মারাত্মক সমস্যা রয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের পাঁচ বছরের নিরীক্ষা আপত্তির পরিমাণ ২৮ হাজার কোটি টাকা। সেবা খাতে দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। প্রকল্প গ্রহণে পরিকল্পনার সঙ্গে বাস্তবতার মিল থাকে না। রাষ্ট্রের আর্থিক বিভাগ চৌর্যবৃত্তিতে ভরে গেছে।

এ দেশে যারা পয়সাওয়ালা হিসেবে পরিচিত, তারাই এসব চৌর্যবৃত্তির সঙ্গে জড়িত। বেসিক ব্যাংকের টাকা চুরির আলোচনা শেষ না হতেই বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ লুট হয়ে গেছে। অর্থমন্ত্রী এসব বিষয়ে কী ব্যবস্থা নিয়েছেন? বাজেট বক্তৃতায় তিনি জিরো টলারেন্সের কথা বললেও লুটেরাদের টিকিটিও স্পর্শ করতে পারছেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here