পুলিশের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ : যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ দুই গ্রুপের তুমুল মারামারিতে পন্ড

0
61

নিউইয়র্ক: অর্থ পাচার মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ৭ বছরের জেলের রায়ের প্রতিবাদে গত ২৪ জুলাই সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির একটি গ্রুপ জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার সিটিপ্লাজায় বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে। একই সময়ে বিএনপির অন্য একটি গ্রুপ ডাইভার সিটি প্লাজা সংলগ্ন ইত্যাদি গার্ডেনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি।

এই অংশে নেতৃত্ব প্রদান করে সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এহসানুল হক মিলন, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সভাপতি আব্দুল লতিফ সম্রাট , যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট গিয়াস আহমেদ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি আলহাজ্ব সোলায়মান ভুইয়া, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম, নিয়াজ আহমেদ জুয়েল, যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এম এ বাতিন, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রদলের সভাপতি মাজহারুল ইসলাম জনি প্রমুখ।

অন্যদিকে অপর অংশের নেতৃত্বে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু, বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি শরাফত হোসেন বাবু, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক কোষাধ্যক্ষ জসীম ভুইয়া, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তারেক পরিষদ আন্তর্জাতিক কমিটির চেয়ারম্যান আকতার হোসেন বাদল, নিউইয়র্ক সিটি বিএনপির সভাপতি মাওলানা অলিউল্যাহ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাঈদুর রহমান, যুবদলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমেদ প্রমুখ।

07252016_07_US_BNP

এহসানুল হক মিলন ও আব্দুল লতিফ স¤্রাটের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি বিক্ষোভ সমাবেশের পূর্বে একই রেস্টুরেন্ট ইত্যাদি গার্ডেনে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সাজার প্রতিবাদ ও নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির সম্মেলন নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন। সংবাদ সম্মেলন শেষ করে তারা ডাইভার সিটি প্লাজায় বিক্ষোভ সমাবেশ শুরু করেন এবং তারেক রহমানের পক্ষে ও সরকার বিরোধী বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন।

এই সময় জিল্লুর রহমান জিল্লু, সরাফত হোসেন বাবু ও আকতার হোসেন বাদলের নেতৃত্বাধীন বিএনপির অপর গ্রুপটি সংবাদ সম্মেলন করার জন্য ডাইভার সিটি প্লাজার সামনেই প্রতিষ্ঠিত ইত্যাতি গার্ডেন রেস্টুরেন্টের সামনে আসেন। বিক্ষোভ সমাবেশে এহসানুল হক মিলনকে দেখেই এই গ্রুপটি স্লোগান দিতে থাকে। উভয় পক্ষের স্লোগানে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। স্লোগান, পাল্টা স্লোগান এবং উত্তেজনার এক পর্যায়ে জিল্লুর রহমানের নেতৃত্বাধীন গ্রুপ থেকে ২/৩ জন বিক্ষোভের দিকে তেড়ে গেলেই উভয় গ্রুপের মধ্যে তুমুল মারামারি শুরু হয়।

এই পরিস্থিতিতে ঘটনাস্থল থেকে কেটে পড়েন এহসানুল হক মিলন। উভয় গ্রুপের মধ্যে মারামারি, ধাক্কাধাক্কি, এলোপাড়ি কিলঘুষিতে পুরো জ্যাকসন হাইটসে ভীতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। প্রায় ২৫ মিনিটের মত চলে মারামারি। উভয় পক্ষের বেশ কয়েকজন কিলঘুষি এবং লাথি খেয়ে আহত হলেও কাউকে হাসপাতালে নিতে হয়নি। এরিই মধ্যে কয়েক গাড়ি পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং উভয় গ্রুপকে স্থান ত্যাগে বাধ্য করে।

Video : 1

Video 2:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here