নিয়মিত কফি পানে আয়ু বাড়ে

0
111

11অনলাইন ডেস্ক: যারা নিয়মিত কফি পান করেন তারা দীর্ঘজীবী হতে পারেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বেশকিছু গবেষণায় এমন তথ্য উঠে এসেছে বলে মেডিকেল নিউজ টুডের এক প্রতিবেদনে জানা যায়।গবেষকরা বিশ্বাস করেন, তারা মানবদেহে এ সম্পর্কে একটি ক্রিয়াবিধি উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছেন।

নতুন এক গবেষণায় গবেষকরা মানবদেহে একটি প্রদাহজনক প্রক্রিয়ার আবিষ্কার করেছেন। যা মানুষের শেষ জীবনে হৃদরোগ বাড়িয়ে দিতে পারে। গবেষকরা তাদের ফলাফলে দেখেন, ক্যাফেইন গ্রহণে এই প্রদাহ প্রতিরোধ করা যায়।

ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির ইনস্টিটিউট অব ইমিউনিটি, ট্রান্সপ্লান্টেশন অ্যান্ড ইনফেকশনের নেতৃস্থানীয় লেখক ড. ডেভিড ফুরম্যান ও তার সহকর্মীরা সম্প্রতি ‘নেচার মেডিসিন’ জার্নালে তাদের গবেষণাকর্মের ফলাফল প্রকাশ করেছেন। এতে বলা হয়েছে, সাধারণত কফি, চা, সোডা, এনার্জি ড্রিংকস ও চকলেক ক্যাফেইন রয়েছে যা খাদ্য ও বেভারেজ হিসেবে পান করা হয়। এই ক্যাফেইন মস্তিষ্কে উত্তেজক হিসেবে কাজ করে বলে সমধিক প্রচলিত।

কয়েকটি গবেষণাকর্ম নিয়মিত কফি পানের পরামর্শ দিয়ে বলেছে, কফি গ্রহণ করলে মানুষের জীবন দীর্ঘায়িত হতে পারে। উদাহরণ হিসেবে ২০১৫ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণাকর্মের প্রতিবেদনে বলা হয়, কেউ কখনো কফি পান করেনি এমন ব্যক্তির চেয়ে দৈনিক ১ থেকে ৫ কাপ কফি পান করেছে তাদের মৃত্যুর ঝুঁকি কম।

ফুরম্যান ও তার সহকর্মীরা বলছেন, ক্যাফেইন গ্রহণ জীবনীশক্তি বাড়িয়ে দেয় এবং সম্ভবত প্রদাহ রোধ করে। এই গবেষকরা তাদের গবেষণায় সর্বপ্রথম প্রদাহ প্রক্রিয়াকে চিহ্নিত করেছেন, যা বৃদ্ধ বয়সের দুর্বল হৃদপিন্ডে কাজ করার জন্য অবদান রাখতে পারে।

গবেষক দলটি তাদের এই গবেষণাকর্মের জন্য প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তিদের নিয়ে দুটি দল গঠন করেন। একটি দলে ছিলেন ২০ থেকে ৩০ বছর বয়সী এবং অন্য দলে ছিলেন ৬০ থেকে অধিক বয়সের ব্যক্তিরা। তারা আরো বলেছেন, যে সমস্ত ডায়াবেটিস রোগী দৈনিক আট থেকে নয় গ্লাস পানি পান করবে তাদের রক্তের সুগার কমে যাবে এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here