নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকট আলোচনা

0
59

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে শুক্রবার বাংলাদেশ সময় মধ্যরাতে ফের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। রুদ্ধদ্বার ও অনানুষ্ঠানিক এ বৈঠকে কী সিদ্ধান্ত বা আলোচনা হয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি। তবে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে নিরাপত্তা পরিষদের জোরালো ভূমিকা দাবি করেছে বাংলাদেশ।

যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের উদ্যোগে শুক্রবারের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা ছাড়াও জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস, সাবেক মহাসচিব কফি আনানের সঙ্গে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে বর্তমান রোহিঙ্গা পরিস্থিতি তুলে ধরে নিরাপত্তা পরিষদের দায়িত্বের কথা স্মরণ করিয়ে দেয় বাংলাদেশ।

চলতি বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে উন্মুক্ত আলোচনায় ফ্রান্সের প্রতিনিধি বলেছেন, ‘অক্টোবরে নিরাপত্তা পরিষদের প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করবে ফ্রান্স। এ সময় মিয়ানমার পরিস্থিতিতে আমাদের পূর্ণ মনোযোগ থাকবে।’

ওই সময় তিনি আরও বলেছেন, ‘আমরা যুক্তরাজ্যের সহায়তায় নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনার আয়োজন করব। সেখানে অন্য আলোচকদের সঙ্গে কফি আনানও থাকবেন।’

জানা গেছে, মিয়ানমারের বর্তমান পরিস্থিতি বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখ করে এই সপ্তাহের শুরুর দিকে নিরাপত্তা পরিষদ ও জাতিসংঘের মহাসচিবকে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ। এতে বলা হয়, ১৯ সেপ্টেম্বর মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি জানিয়েছিলেন, ৫ সেপ্টেম্বর থেকে রাখাইনে অভিযান বন্ধ আছে। কিন্তু এখনও সেখানে ঘরবাড়ি পোড়ানো হচ্ছে। রোহিঙ্গারা সেখান থেকে পালিয়ে আসছে।’

২৫ আগস্ট রোহিঙ্গা সংকট শুরুর পর থেকে চার দফা বৈঠক করেছে নিরাপত্তা পরিষদ। গত মাসের শেষদিকে তৃতীয় এবং প্রথম উন্মুক্ত বৈঠকে মিয়ানমার সরকারের কড়া সমালোচনা করেছে ১৫ সদস্যবিশিষ্ট সংস্থার বেশির ভাগ সদস্য। তবে মিয়ানমারের পক্ষ নেয় চীন ও রাশিয়া।

মিয়ানমারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য জোর দাবি উঠেছে, যে কাজটি শুধু করতে পারে নিরাপত্তা পরিষদ। এএফপি জানায়, রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার আহ্বান জানিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব পাসের চেষ্টা করছে ব্রিটেন। তবে চীনের সঙ্গে এ সংক্রান্ত আলোচনা ধীরগতিতে এগোচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here