নিউ ইয়র্কে একই স্থানে তিন বাংলাদেশি খুনের ঘটনায় প্রবাসীরা শঙ্কিত

0
214

nazmul-islamনিউ ইয়র্ক: নিউ ইয়র্কে দুই বছরের ব্যবধানে একই স্থানে তিন বাংলাদেশির খুনের ঘটনায় শঙ্কিত হয়ে উঠেছে কুইন্সের বাংলাদেশি অধ্যুষিত ওজনপার্ক এলাকার প্রবাসী বাংলাদেশিরা। দুই বছর আগে এ এলাকায় কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তের হাতে খুন হয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ নেতা নাজমুল ইসলাম। তাঁর এ হত্যাকান্ডের মামলার রায় শেষ না হতেই আরো দুই বাংলাদেশি খুনের ঘটনায় উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে স্থানীয় বাংলাদেশিরা। এ এলাকাটি বাংলাদেশিদের জন্য নিরাপদ নয় বলেও অনেকেই ধারনা করছেন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস।

গত শনিবার দুপুরে শহরের কুইন্সের ওজন পার্ক এলাকার অজ্ঞাত এক দুর্বৃত্ত এলোপাতারি গুলিতে নিহত হন স্থানীয় মসজিদের ইমাম মাওলানা আলাউদ্দিন আকঞ্জি তাঁর সহযোগি তারা উদ্দিন মিয়া। দুই বছর আগে মাত্র তিন ব্লক দূরে কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্রের আঘাতের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে আওয়ামীলীগ নেতা নাজমুল ইসলামকে।

গত শনিবার ওজন পার্কের গ্লেনমোর এভেন্যুর আল ফুরকান জামে মসজিদে জোহরের নামাজ শেষে ইমাম মাওলানা আলাউদ্দিন আকঞ্জি ও তাঁর সহযোগি তারা উদ্দিন মিয়া একত্রে বাড়ি ফেরার সময় অজ্ঞাত এক দুর্বৃত্ত এলোপাতারি গুলি চালায়। ঘটনাস্থলেই নিহত হন স্থানীয় মসজিদের ইমাম মাওলানা আলাউদ্দিন আকঞ্জি। গুরুতর আহতাবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তাঁর সহযোগি তারা উদ্দিন মিয়া।

২০১৪ সালের ৯ জুলাই বুধবার ভোররাতে ওজনপার্ক এলাকায় কৃষ্ণাঙ্গ দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্রের আঘাতের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নাজমুল ইসলাম (৫৫) কে। একই দিন ভোর বেলা রাস্তা থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার ৩ দিন পর হত্যার সূত্র খুঁজে পায় পুলিশ। ঘটনাস্থলের পাশের একটি বাড়ির ভিডিও ফুটেজ দেখে পুলিশ নিশ্চিত হয় যে, নিহত নাজমুল একটি দোকান থেকে দৌড়ে বের হচ্ছিলেন। দুই জন লোক তাকে অনুসরণ করছিলো। নাজমুল তার ফোন থেকে পুলিশকে ফোন করার চেষ্টা করেছিলেন। তার আগেই দুর্বৃত্তরা তাঁকে আটলান্টিক এভিনিউর ৭৬ স্টিটের উপর আক্রমণ করে। দুর্বৃত্তরা তার মুখে উপর্যপুরি আঘাত করতে থাকে এবং এক পর্যায়ে মাটিতে পড়ে গেলে তারা তাঁকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে। মৃত দেহ রাস্তায় পড়ে থাকলে দেখে কে বা কারা পুলিশ কল করলে তাকে এম্বুলেন্সে করে জ্যামাইকা হাসপাতলে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। তার মৃত্যুর খরবটিও নাজমুল ইসলামের বাসায় জানানো হয় ৯ জুলাই সকাল ৫ টায় জ্যামাইকা হাসপাতালে থেকে। দুই বছরের ব্যবধানে ওজনপার্ক এলাকায় দুর্বৃত্তের হাতে নিহত প্রবাসী বাংলাদেশি তিনজনেরই দেশের বাড়ি বৃহত্তর সিলেট জেলায়। ইমাম মাওলানা আলাউদ্দিন আকঞ্জির বাড়ী সিলেটের হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে এবং তারা উদ্দিন মিয়ার বাড়ি সিলেটের গোলাপগন্জের লক্ষ্মীপাশা ইউনিয়নের জাঙ্গাহাটায় এবং নাজমুল ইসলামের সিলেটের বিয়ানীবাজারে।