নিউইয়র্ক প্রভাতী বাংলা বর্ষবরণ’ ১৪২৪

0
181

03282017_04_NY_BANGLA_NEW_YEAR-1024x256নিউইয়র্ক: দুয়ারে কড়া নাড়ছে নতুন বাংলা বছর ১৪২৪ । উন্মূল এই প্রবাসেও সে আসবে আগামীর প্রসন্ন প্রতিশ্রুতি নিয়ে। মুছে যাবে গ্লানি, অগ্নিস্নানে শুচি হবে ধরা। এই প্রার্থনা নিয়ে উত্তর আমেরিকায় প্রথমবারের মত আনন্দধ্বনি নিউইয়র্কে আয়োজন করতে যাচ্ছে প্রভাতী বাংলা বর্ষবরণ, আগামী ১৫ই এপ্রিল, ২০১৭, শনিবার, সকাল ৭:৩০ মিনিটে, স্থান : কুইন্স প্যালেস ।

গানে, কবিতায় ও কথায় আমরা সম্মিলিত ভাবে বরণ করব বাংলা বর্ষ ১৪২৪। প্রায় ৩ ঘন্টা ব্যাপী এই বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে থাকছে আনন্দধ্বনির অর্ধশতাধিক শিল্পী ও যন্ত্রী শিল্পীদের সমন্ময়ে সন্মেলক গান ও একক পরিবেশনা, পাশাপাশি থাকবে প্রবাসের বিশিষ্ট শিল্পী ও আবৃত্তিকারের পরিবেশনা ও সংষ্কৃতিজনদের অনভূতি । অনুষ্ঠান শুরু হবে প্র্রভাত আলোয় সেঁতারের সুরের মূর্চ্ছনায় । অনুষ্ঠানে মূলত পঞ্চ গীতিকবির গান, লোক গান, গণ সংগীত এবং দেশের গান পরিবেশন করা হবে । সাথে থাকবে আমাদের ভালবাসার উষ্ণতায় মোড়া বৈশাখী প্রাতঃরাশ।

আমরা এ ব্যাপারে সম্পূর্ণ সচেতন এই কাজটি সুচারু ভাবে সম্পন্ন করা সহজ নয়, মধ্য এপ্রিলের শীতের ভোরে দর্শকদের অনুষ্ঠান মঞ্চে সমবেত করা একটি প্রায়-অসম্ভব কাজ। তা সত্বেও এই উদ্যোগটি আমরা গ্রহণ করেছি। আপনারা জানেন, বাংলা নববর্ষ বাঙালির এক সার্বজনীন লোকউৎসব । কল্যাণ ও নতুন জীবনের প্রতীক হলো নববর্ষ। বাংলাদেশে এই দিনটি উদযাপনের জন্য আমরা বরাবর অতি প্রত্যুষে, ভোরের প্রথম আলো সম্ভাষণ জানানোর আগেই, রমনার বটমূলে সমবেত হয়েছি। আমরা সেই ঐতিহ্যটি ফিরিয়ে আনতে চাই প্রবাসেও, প্রত্যুষে নববর্ষ উদযাপনের সেই আনন্দ, আগ্রহ ও প্রত্যাশার অভিজ্ঞতা কিছুটা হলেও প্রবাসী বাঙ্গালিদের মনে আমরা সঞ্চারিত করতে চাই ।

২০১৩ সালে নিউইয়র্কে গঠিত আনন্দধ্বনি একটি স্বেচ্ছাশ্রমভিত্তিক সাংস্কৃতিক সংগঠন, যা তিন দশক পূর্বে যাত্রা শুরু করে ছিলেন বাংলাদেশে প্রথিত যশা সাংবাদিক ও সংগীতগুরু ওয়াহিদুল হক । নিউইয়র্ক, নিউজার্সী, কানিকটিকাট ও পেলসিলভিনিয়ায় বসবাসরত আনন্দধ্বনির দুই বাংলার শিল্পীরা শুদ্ধভাবে গান পরিবেশন করতে চেষ্টা করে । সংগঠনের সাথে যুক্ত শিল্পী ও সংষ্কৃতিজন প্রবাসের শত পরিশ্রমের মধ্যেও সম্পুর্ন স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে আনন্দধ্বনি গড়ে তুলেছে । মূলত এর পেছনে রয়েছে তাঁদের বাংলা ভাষা, সংগীত ও স্বদেশের প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা; সর্বোপরি ত্যাগ এবং সংগীতের প্রতি একগ্রতা।

এই কঠিন কাজটি আমরা একা সম্পন্ন করতে পারব না, একথা আমরা জানি। কিন্তু সবাই হাত লাগালে কোন কাজই দুঃসাধ্য নয়, একথাও আমরা জানি। আপনাদের সাহায্য ও সমর্থনে এই শহরে আমরা রবীন্দ্রনাথের নাটকের গান পরিবেশন করেছি,পঞ্চ কবিরগান, রবীন্দ্র-নজরুল জয়ন্তী, কবি শহীদ কাদরীর প্রিয় গান ও কবিতা-ভিত্তিক বিশেষ অনুষ্ঠান করেছি, সঙ্গীতগুরু মুত্তালিব বিশ্বাসের প্রতি সম্মাননা জানিয়ে তিন ঘন্টার ওপর সঙ্গীতায়োজন করেছি। আয়োজন করেছি বিখ্যাত শিল্পী শ্রীকান্ত আচার্য্য ও জয়তী চক্রবর্তীর একক সংগীতানুষ্ঠান এই নিউইয়র্কে ।

আমাদের এই আয়োজেনে স্বপ্রনোদিত হয়ে শিল্পী, সাহিত্যিক, সংষ্কৃতি কর্মী, পেশাজীবি, ব্যবসায়ী ও সাংবাদিকবৃন্দসহ অনেকেই সাহায্য ও সহযোগিতার হাঁত বাড়িয়ে দিয়েছেন । তাঁদের কাছে আনন্দধ্ধনি কৃতজ্ঞ । আমাদের বিশ্বাস, আপনাদের পাশে পেলে আগামী বাংলা নববর্ষ’২৪ উদযাপনের এই সাহসী উদ্যোগটি ব্যর্থ হবে না । ইতিপূর্বে আনন্দধ্বনির সকল আয়োজনে আপনাদের সাথে পেয়েছি, আগামীতেও পাব, এই বিশ্বাস আমাদের আছে । আপনাদের শত ব্যস্ত থাকা সত্ত্বেও উপস্থিত হবার জন্যও আনন্দধ্বনি পক্ষ্ থেকে জানাই আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন । নতুন উদ্যোগের সাথে আপনারা যুক্ত হবেন এ আশা ব্যক্ত করছি ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here