নিউইয়র্কে মানববন্ধন থেকে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে মানবতার ঐক্য কামনা

0
236

07182016_04_NYCALনিউইয়র্ক থেকে: ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান, কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদ জামাতসহ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানবতার ঐক্য কামনায় নিউইয়র্কে মহানগর আওয়ামী লীগের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হলো। ১৭ জুলাই রোববার অপরাহ্নে জ্যাকসন হাইটসে ডাইভার্সিটি প্লাজায় অনুষ্ঠিত এ কর্মসূচি থেকে শত ষড়যন্ত্র সত্ত্বেও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল অব্যাহত রাখায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানিয়ে হোস্ট সংগঠনের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী বলেন, ‘একাত্তরের ঘাতকদের বিচার ব্যাহত করার মতলবে জামাত-শিবিরের ইন্ধনে সাম্প্রতিক জঙ্গিবাদের ঘটনাবলী ঘটানো হচ্ছে।

কিন্তু জনগণের কাছে প্রদত্ত অঙ্গিকারের কারণে আপনি একাত্তরের ঘাতকদের বিচার অব্যাহত রেখেছেন। এবং অবশিষ্ট ঘাতকদের বিচার শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রবাসী বাঙালিরাও অতন্দ্র প্রহরীর ন্যায় আপনার পাশে থাকার সংকল্প গ্রহণ করেছে।’ এ সময় সকলে গগনবিদারি স্লোগান ধরেন, ‘শেখ হাসিনা ভয় নাই-বঙ্গবন্ধুর সৈনিকেরা রাজপথ ছাড়ে নাই’, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ আর সন্ত্রাসের ঠাঁই নেই’, ‘জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু’ ইত্যাদি। জাকারিয়া উল্লেখ করেন, ‘সন্ত্রাসবাদ এখন গোটাবিশ্বের এক নম্বর সমস্যা। এই যুক্তরাষ্ট্রেও বিভিন্ন আবরণে সন্ত্রাস চালানো হচ্ছে। তাই সকলকে ঐক্যবদ্ধ ঘাকতে হবে সবধরনের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে।’

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা এবং মুক্তিযোদ্ধা এম এ জলিল বলেন, ‘একাত্তরের ঘাতকদের প্রধান আইনজীবী এবং জামাত নেতা ব্যারিস্টার রাজ্জাক একটি সভা করার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন নিউইয়র্ক সিটির ওজোনপার্ক এলাকায়। কিন্তু প্রবাসীদের ধাওয়ায় সেটি ভন্ডুল হয়েছে। এভাবেই সর্বত্র প্রতিরোধ রচনা করতে হবে ধর্মের নামে সন্ত্রাসে লিপ্তদের কর্মকান্ডে।’সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরনবী কমান্ডার বলেন, ‘বিএনপির মদদে জামাত-শিবিরের লোকজন সন্ত্রাস চালাচ্ছে। একাত্তরের চেতনায় এসব জঙ্গিদের সমূলে নির্মূল করতে হবে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। এজন্যে যত রকমের সহায়তা প্রয়োজন তা প্রবাসের বাঙালিরা দিতে বদ্ধ পরিকর।’ ‘বাংলাদেশের জঙ্গিবাদের উৎস ধ্বংস করার স্বার্থেই অবিলম্বে জামাত-শিবির নিষিদ্ধ এবং বিএনপির জঙ্গিদের দ্রুত বিচার আদালতে সোপর্দ করা দরকার’-বলেন নূরনবী কমান্ডার।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভানেত্রী মোর্শেদা জামান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাসুদ হোসেন সিরাজিও জঙ্গিবাদের মদদদাতাদের বাংলার মাটি থেকে উচ্ছেদে যে কোন ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত বলে উল্লেখ করেন। মহানগর আওয়ামী লীগের এ কর্মসূচিতে বিভিন্ন স্তরের প্রতিনিধিত্বকারিরাও অংশ নেন।