দেশ এখন জঙ্গি দমনের যুদ্ধে আছে

0
245

2016_06_18_18_04_47_wkYqtX0GfQAnZY62ZBwmCjHrlY7pvk_originalঢাকা: দেশ এখন জঙ্গিবাদ দমনের যুদ্ধের মধ্যে আছে। দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য জঙ্গিবাদ দমনের এ যুদ্ধে প্রশাসনের কর্মচারীদের ভূমিকা রাখার জায়গা আছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি।

সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির চিত্রশালা মিলনায়তনে বিসিএস ইনফরমেশন এসোসিয়েশন আয়োজিত সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন সিনিয়র সচিব প্রয়াত ড. রণজিৎ কুমার বিশ্বাসের আলোচনাসভায় তিনি একথা বলেন।

তিনি প্রশাসনের কর্মচারীদের উদ্দেশ করে বলেন, ‘আপনাদের ভূমিকা ছাড়া জনসাধারণ ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারীবাহিনী একা এ যুদ্ধের ফসল ঘরে তুলতে পারবে না।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রণজিৎ কুমার বিশ্বাস এদেশের সংস্কৃতিকে বক্ষে ধারণ করে দেশের মানুষের প্রতি যেভাবে সেবা করে গেছেন সেটা অনুকরনযোগ্য। তিনি দেশের প্রতি অনুগত থেকে উনার প্রতি অর্পিত দায়িত্ব পালন করেছেন।’

রণজিৎ কুমার বিশ্বাসকে কথার জাদুকর অভিহিত করে তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘বিভিন্ন অনুষ্ঠানে রণজিৎ কুমার বিশ্বাসের সাথে আমরা একই মঞ্চে কথা বলেছি। বিশুদ্ধ উচ্চারণ, চমৎকার বাচন ভঙ্গি রপ্তকরা রণজিৎ বিশ্বাস ছিলেন দেশজ সংস্কৃতিতে মোড়া একজন খাঁটি মানুষ।

জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব কামাল চৌধুরী বলেন, ‘পান্ডিত্যে, লেখায় এবং কথায় রণজিৎ কুমার বিশ্বাসের বহুমাত্রিকতা সবাইকে স্বীকার করতে হয়।’

তিনি বলেন, ‘তাকে শুধু এ মিলনায়তনে আলোচনার মাধ্যমে সীমাবদ্ধ রাখলে চলবে না। তার স্মৃতি ধরে রাখতে হলে তার লেখা নিয়ে একটি সংকলন ও একটি স্মারক গ্রন্থ প্রকাশ করতে হবে।’

তথ্যসচিব মতুজা আহমেদ বলেন, রণজিৎ কুমার বিশ্বাস ছিলেন শিল্প, সাহিত্য ও সঙ্গীতের পৃষ্ঠপোষক। জ্ঞান পিপাসু এ মানুষটি একেই সাথে ছিলেন প্রবন্ধকার, আবৃত্তিকার ও অনুবাদকও। এত যোগ্যতার অধিকারী হয়েও তিনি ছিলেন প্রচার বিমুখ।’

ক্রীড়া লেখক সমিতির সভাপতি মুস্তফা মামুন বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই রণজিৎ কুমা্র বিশ্বাসের ক্রীড়া বিষয়ক লেখা পড়ে বড় হয়েছি। ক্রিকেটের সাথে তিনি কাব্য ও মানুষের জীবনে মেশাতেন। তিনি যে এত বড় মাপের একজন সরকারি কর্মচারি ছিলেন তা অনেক পরে জেনেছি।’

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি, রণজিৎ বিশ্বাসের সহধর্মিনী মিস শেলি সেন গুপ্তা, সাবেক অতিরিক্ত সচিব এইচ এম আবদুল্লাহ, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা এ কে এম শামীম চৌধুরী, রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here