তৃতীয় বিশ্বের দ্রোহী এক নাম কাজী নজরুল

0
215

kazi najrul islamকাজী নজরুল ইসলাম, তৃতীয় বিশ্বের এক দ্রোহী নাম। ঝাঁকড়া চুলের বাবরী দোলানো এ কবির জন্মই হয়েছিলো হয়তো আমাদের বিবেক ও চেতনাকে নাড়িয়ে দেবার জন্য। তিনি একাধারে বিদ্রোহের কবি, সাম্যের কবি, উত্তরণের কবি, মানুষ ও মনুষত্বের কবি, চেতনার কবি, তিনি জাগরণের কবি, তিনি অসহায় নিপীড়িত মানুষের কবি এবং তারই সাথে একজন প্রেমিক হৃদয়ের কবিও বটে। নিগৃহীতের জন্য কেঁদেছে তার মন, এক হাতে তুলেছিলেন বাঁশের বাশরী, আরেক হাতে রণ-তূর্য্য। আসলেই এত বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এই অমর কবির উপমা দেবার মত শব্দাবলী বড় দূর্লভ।

কবি বেঁচেছিলেন বেশ অনেকটা বয়স পর্যন্ত। কিন্তু তার সৃজনশীল কর্মকান্ড থেমে গিয়েছিলো তার শাররীক ও মানষিক অসুস্থতার কাছে। তিনি বেঁচেছিলেন জীবন্মৃতের মত। পিছে ফেলে রাখা সকল সৃষ্টিশীল কর্মকান্ড সঙ্গে নিয়ে কবি কাটিয়েছেন বেশ অনেকটা সময়।

১৮৯৯ সালের ২৪শে মে (১১ জ্যৈষ্ঠ ১৩০৬) বুধবার বর্ধমান জেলার আসানসোল মুহকুমার তৎকালীন রাণীগঞ্জ থানার অন্তর্ভুক্ত চুরুলিয়া গ্রামের কাজী পরিবারের জন্মগ্রহণ করেন বিংশ শতাব্দীর অন্যতম জনপ্রিয় বাঙালি কবি, সঙ্গীতজ্ঞ, সংগীতস্রষ্টা, দার্শনিক কাজী নজরুল ইসলাম ।
১৯০৮ সালের ২০শে মার্চ নজরুল এর পিতা কাজী ফকির আহমেদ মৃত্যুবরণ করেন। তখন তার বয়স মাত্র নয় বছর। আর্থিক অভাবে শিক্ষা জীবন বিঘ্নিত হয়। খুব ছোট বয়সেই মসজিদের ইমামতি, মাজারের খাদেমগিরি ইত্যাদি কাজে জীবিকা নির্বাহ করতে হয়েছিলো এই বরেণ্য কবিকে । কৈশোরে বিভিন্ন থিয়েটার দলের সাথে কাজ করতে যেয়ে তিনি কবিতা, নাটক এবং সাহিত্য সম্বন্ধে জ্ঞান লাভ করেন। কাজী নজরুল ইসলামের ডাক নাম ছিল “দুখু মিয়া”।

তাঁর কবিতায় বিদ্রোহী মনোভাবের কারণে তাঁকে বিদ্রোহী কবি নামে আখ্যায়িত করা হয়েছে। তাঁর কবিতার মূল বিষয়বস্তু ছিল মানুষের ওপর মানুষের অত্যাচার এবং সামাজিক অনাচার ও শোষণের বিরুদ্ধে সোচ্চার প্রতিবাদ। একাধারে কবি, সাহিত্যিক, সংগীতজ্ঞ, সাংবাদিক, সম্পাদক, রাজনীতিবিদ এবং সৈনিক হিসেবে অন্যায় ও অবিচারের বিরুদ্ধে নজরুল সর্বদাই ছিলেন সোচ্চার। তাঁর কবিতা ও গানে এই মনোভাবই প্রতিফলিত হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here