তামিমির সঙ্গে না পেরে তার গ্রাম অবরোধ ইসরাইলের

0
106

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: ইসরাইলি সেনাসদস্যদের চড়-থাপ্পড় মেরে কারাবন্দি ফিলিস্তিনিকন্যা আহেদ আল তামিমি। এতেও না দমে সুযোগ পেলে ফের ইসরাইলি সেনাদের থাপড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে এ কিশোরী।

এ অবস্থায় তামিমির সাহসের সঙ্গে না পেরে আরও উন্মত্ত হয়ে পড়েছেন দখলদার সেনারা। তারা কিশোরীর গ্রাম ‘নবী সালেহ’য় মিলিটারি জোন ঘোষণা দিয়ে সেখান থেকে প্রবেশ ও বের হওয়ার সব পথ বন্ধ করে দিয়েছে।

ফিলিস্তিনের সরকারি বার্তা সংস্থা ওয়াফা নিউজ এজেন্সির বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে আলজাজিরা।

ইসরাইলি সেনারা নবী সালেহ গ্রামের সব পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির পাশাপাশি গ্রামটিতে সাধারণ ফিলিস্তিনি ও সাংবাদিকদেরও প্রবেশ বন্ধ করে দিয়েছেন।

আহেদ তামিমির চাচা বিলাল আল তামিমি ওয়াফা নিউজ এজেন্সিকে জানান, ইসরাইলি সেনারা গ্রামের রাস্তাগুলোতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছেন। তারা সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাসকারী ছাড়া অন্য ফিলিস্তিনি ও সাংবাদিকদের প্রবেশ বন্ধ করে দিয়েছেন।

তবে অন্য ফিলিস্তিনিরা বিকল্প ও কষ্টসাধ্য বিভিন্ন পথ ব্যবহার করে গ্রামটিতে প্রবেশ করছেন এবং আহেদ তামিমিসহ অন্য ফিলিস্তিনিদের মুক্তির জন্য প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন।

সম্প্রতি আহেদ তামিমির এক চাচাতো ভাইকে মাথায় গুলি করেন ইসরাইলি সেনারা। এতে কিশোরটি কয়েক দিন কোমায় থাকার পর মারা যায়।

এই বর্বোচিত ঘটনার পর ইসরাইলি সেনারা তামিমিদের বাড়ির সামনে এলে তাদের দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়ে কিশোরী আহেদ তামিমি। সে ইসরাইলি সেনাদের চপেটাঘাত করে।

পরে ইসরাইলি মিডিয়ার উসকানির মুখে গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে আহেদকে আটক করে নিয়ে যান ইসরাইলি সেনারা। পরে তার মা ও চাচাতো বোন নূর তামিমিকেও আটক করা হয়। নূরকে মুক্তি দেয়া হলেও আহেদ, তার মা ও চাচি এবং এক ভাই এখনও দখলদারদের বন্দিশালায় আটক রয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here