ড. রশিদ মালিকের সমর্থনে নিউইয়র্কে ফান্ড রেইজিং : ভোট দিয়ে নির্বাচিত করুণ

0
189

11022016_12_dr_rashid_malikনিউইয়র্ক : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পাশাপাশি বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের সিনেট ও কংগ্রেস আসনেও ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামী ৮ নভেম্বর মঙ্গলবার এই নির্বাচন। এবারের নির্বাচনে একমাত্র বাংলাদেশী-আমেরিকান প্রার্থী হিসেবে বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ ও সমাজসেবী ড. রশিদ মালিক জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের ডিষ্ট্রিক্ট-৭ থেকে ইউএস কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ঢাকার সন্তান ড. মালিকের আসন্ন নির্বাচনে বিজয়ের সম্ভাবনাও প্রবল বলে বিভিন্ন সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে। এদিকে তার সমর্থনে প্রবাসী বাংলাদেশীদের উদ্যোগে নিউইয়র্কে আয়োজিত ফান্ড রেইজিং অনুষ্ঠানে কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার আহ্বান জানিয়েছেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ড. মালিক সাহস করে প্রার্থী হয়েছেন, শুরু করেছেন। তাকে নির্বাচিত করে আমাদেরকে শেষ বিজয় অর্জন করতে হবে। তিনি বাংলাদেশী-আমেরিকান নতুন প্রজন্মের জন্য অনুকরীয়-অনুস্মরণীয় দৃষ্টান্ত, প্রবাসী বাংলাদেশীদের গর্ব। খবর ইউএনএ’র।

সিটির জ্যাকসন হাইটসস্থ খাবার বাড়ী রেষ্টুরেন্টের পালকি পার্টি হলে গত ১ নভেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আয়োজিত ড. রশিদ মালিকের ফান্ড রেইজিং অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সি এন্ড টি হোম কেয়ারের সহযোগিতায় এনওয়াইসি ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স, নিউইয়র্ক আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আহ্বায়ক হাসানুজ্জামান হাসান। কংগ্রেসম্যান পদপ্রার্থী ড. মালিক ছাড়াও আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠান মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ ও ব্যবসায়ী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. দেরোয়ার হোসেন, মূলধারার রাজনীতিক মোর্শেদ আলম, গিয়াস আহমেদ, এটর্নী মইন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট এন মজুমদার, ভার্জিনিয়া থেকে আগত বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ অধ্যাপক ড. বদরুল খান, সাপ্তাহিক আজকাল-এর প্রধান সম্পাদক ও জেবিবিএ নিউইয়ক-এর সভাপতি জাকারিয়া মাসুদ জিকু, অনুষ্ঠানের প্রধান পৃষ্ঠপোষক, বিশিষ্ট সমাজসেবী ও রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টও আনোয়ার হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সৈয়দ রহমান মান্নান, পিপল এ›ন্ড টেক’র সিইও ইঞ্জিনিয়ার আবু হানিপ, নর্থ বেঙ্গল ফাউন্ডেশন ইউএসএ’র সভাপতি মোহাম্মদ আতাউল আলম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আশরাফুল হাসান বুলবুল ও ফাহাদ সোলায়মান।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ড. রশিদ মালিকের সমর্থনে বক্তব্য রাখেন ড. রশিদ মালিকের নির্বাচনের ক্যাম্পেইন ম্যানেজার আলী হোসেন, ডা. খন্দকার মাসুদুর রহমান, ফার্মাসিস্ট আওয়াল সিদ্দিকী, অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান, সি এন্ড টি হোম কেয়ারের সিওও মারে উইলিয়াম, আটলান্টা থেকে আগত নবুয়াত খান মজলিস প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে হাসানুজ্জামান হাসান বলেন, ইতিপূর্বে আমি ড. রশিদ মালিকের নাম শুনিনি, তাকে দেখিনি, তাকে চিনিও না। কিন্তু ইউএস কংগ্রেসম্যান পদে প্রার্থীতার কথা শুনে তার প্রতি আগ্রহী হই এবং গুগুল দেখে তার সম্পর্কে জেনে অভিভুত হই এবং তার জন্য কিছু করার রয়েছে মনে করেই ফান্ড রেইজিং অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তিনি বলেন, ড. মালিকের প্রতিদ্বন্দ্বিতা নতুন প্রজন্মকে উৎসাহিত করবে। সবাই মিলে তাকে ভোট দিলে তার জয়ের সম্ভাবনাও রয়েছে। তিনি প্রেসিডেন্ট পদে হিলারির পাশাপাশি ড. রশিদ মালিকের পক্ষে জর্জিয়াবাসী বাংলাদেশীদের কাজ করা এবং ভোট দেয়ার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে কংগ্রেসম্যান পদপ্রার্থী ড. রশিদ মালিক বলেন, বিগত ৪৩ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বাস করছি। আমাদের টার্গেট নতুন প্রজন্মের জন্য কাজ করা। তিনি বলেন, শুধু যুক্তরাষ্ট্র নয়, সমগ্র বিশ্বে আজ নারী ও শিশুরা অবহেলিত, নির্যাতিত, মানবাধিকার ভুলন্ঠিত। এই অবস্থান পরিবর্তণ করতে হলে নারীদের সম্মান-মর্যাদা দিতে হবে। আর ‘ম্যাডার প্রেসিডেন্ট’ হিলারিই পারবেন সবার মর্যাদা-অধিকার নিশ্চিত করতে। তিনি প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে ট্রাম্প ও হিলারির মধ্যকার পার্থক্য সংক্ষেপে তুলে ধরে হিলারি ক্লিনটনকে একজন যোগ্য প্রার্থী এবং তার জয়ের ব্যাপারে ১০০ ভাগ নিশ্চিত উল্লেখ করে ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থীদের ভোট দিয়ে বিজয়ী করার জন্য বাংলাদেশী-আমেরিকানদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ড. রশিদ মালিক ইউএস কংগ্রেম্যান পদপ্রার্থী হয়ে সহসের পরিচয় দিয়েছেন। আমাদের পথ দেখাচ্ছেন। তার জন্য কাজ করা আমাদের দায়িত্ব। অর্থ, শ্রম, মেধা, সময় যে কোন পথে আমরা তার কাজে লাগতে পারি। আমাদের একটু সাহায্য-সহযোগিতা তাকে বিজয়ী করতে ভূমিকা রাখবে।

বক্তারা ড. রশিদ মালিককে একজন সহজ-সরল, পরোপকারী সুন্দর মনের মানুষ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ওবামা-হিলারি যেমন আমেরিকার পরিবর্তণের নাম তেমনী ড. মালিক বাংলাদেশী কমিউনিটির পরিবর্তনের নাম। ড. মালিক জয়ী হলে কংগ্রেসে নতুন প্রজন্ম, বাংলাদেশী-আমেরিকান আর বাংলাদেশরই প্রতিনিধিত্ব করবেন। বক্তারা বলেন, ড. মালিকের জন্য আমরা বাংলাদেশী-আমেরিকানরা গর্বিত। তিনি আমাদের মাইল ফলক, নতুন প্রজন্মের জন্য রোল মডেল। আগামী দিনে আমরা তাকে অনুসরণ করবো।

বক্তারা বলেন, সময়-পরিস্থিতি আসন্ন নির্বাচনের হিসাব-নিকাশ পাল্টে দিচ্ছে, আমর বসে থাকার সময় নেই। তাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে প্রেসিডেন্ট পদে হিলারি ও কংগ্রেসম্যান পদে ড. রশিদ মালিক সহ ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থীদের বিজয়ী করতে হবে।  অনুষ্ঠানে কমিউনিটির উল্লেখযোগ্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি নাজমুল আহসান, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক ডা. ওয়াজেদ এ খান, জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী বেবী নাজনীন, মূলধারার রাজনীতিক মাফ মেসবাউদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার ফরহাদ, সি এন্ড টি হোম কেয়ারের প্রেসিডেন্ট জেমস সহ বিশিষ্ট কলামিস্ট আবু জাফর মাহমুদ, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট মোতাহার হোসেন, মাজেদা উদ্দিন, মঞ্জুরুল ইসলাম রবিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।