ডায়েটের এই দশ ভুল এড়িয়ে চলা উচিৎ

0
221

diet-mistakesআপনি হয়তো আপনার বন্ধুবান্ধব বা কলিগদের কাছ থেকে ওজন কমানোর ডায়েটের পরামর্শের কথা শুনতে শুনতে ক্লান্ত। ডায়েট টিপস অনুসরণ করা ও নিয়মিত জিম করার পর ও আপনার অতিরিক্ত ওজন কমাতে পারছেন না আপনি! আপনার ভুল হচ্ছে কোথায়? উত্তরটা খুবই  সহজ- আপনার খাদ্যাভ্যাসেই কোন ভুল হচ্ছে। ডায়েটের এমন কিছু ভুল নিয়েই আমাদের আজকের এই ফিচার।

১। সকালের নাশতা বাদ দেয়া

ওজন কমানোর জন্য অনেকেই সকালের নাশতা বাদ দেন যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। সকালের নাশতা বাদ দিলে দুপুরে অনেক বেশি খাওয়া হয়। অতিরিক্ত খাওয়া এড়িয়ে যাওয়ার জন্য এবং এনার্জির জন্য সকালে স্বাস্থ্যকর নাশতা খাওয়া প্রয়োজন।

২। ক্রাশ ডায়েট করলে

ক্রাশ ডায়েট দীর্ঘদিন মেনে চলা সম্ভব নয়। মুহূর্তেই ওজন কমার জন্য কোন ম্যাজিক ফর্মুলা নেই। ক্রাশ ডায়েটে সুষম খাদ্যের ভারসাম্য ঠিক থাকেনা। ফলে এনার্জি কমে যাওয়া ও মেজাজ খিটখিটে হওয়ার সমস্যা দেখা দেয়।

৩। খাবারের পরিবর্তে এনার্জি বার গ্রহণ করা

স্বাস্থ্যকর খাবারের পরিবর্তে এনার্জি বার খাওয়া উচিৎ নয়। এ ধরণের বারগুলোতে কৃত্রিম মিষ্টিকারক যুক্ত থাকে যা শরীরের জন্য ক্ষতিকর।

৪। ওয়ার্ক আউটের আগে না খাওয়া

এই ভুলটি অনেক মানুষই করে থাকে। তারা মনে করে যে না খেয়ে ওয়ার্ক আউট করলে অনেক বেশি ওজন কমাতে পারবে। এর ফলে ওয়ার্ক আউট করার জন্য পর্যাপ্ত এনার্জি থাকেনা, ফলে সঠিকভাবে ওয়ার্ক আউট করাই সম্ভব হয়না অনেকের।

৫। অস্বাস্থ্যকর স্ন্যাক্স খাওয়া

অফিসে কাজের ফাঁকে ডেস্কে বসে অনেকেই চিপস, চকলেট, বিস্কুট ইত্যাদি স্ন্যাক্সগুলো খায়। এছাড়াও কলিগের জন্মদিনের কেক খাওয়া ও কফি খাওয়াও হয়। এগুলো অনবরত খাওয়া অস্বাস্থ্যকর।

৬। ব্যায়ামের অনেকক্ষণ পরে খাওয়া

এনার্জির জন্য ব্যায়ামের আগে যেমন খাওয়া প্রয়োজন তেমনি ব্যায়ামের পরে খাওয়াও গুরুত্বপূর্ণ।মনে রাখবেন ব্যায়ামের ফলে আপনার শরীরে যে ক্ষয় হয় তা পূরণ করা প্রয়োজন। তাই ব্যায়ামের  কিছুক্ষণ পরেই স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হয়।

৭। পর্যাপ্ত পানি পান না করা

পর্যাপ্ত পানি না পান করা ডায়েটের একটি সাধারণ ভুল। গবেষণায় জানা গেছে যে, যারা বেশি পানি পান করেন তাদের ক্যালোরি বেশি পুড়ে।

৮। জাঙ্কফুড খাওয়া

ব্যায়াম করলেই বেশি জাঙ্কফুড খাওয়ায় কোন সমস্যা নেই এমন ভাবা ঠিক নয়। ওজন নিয়ন্ত্রণের জন্য শুধু ব্যায়াম করাই যথেষ্ট নয়। এজন্য স্বাস্থ্যকর ও সুষম খাদ্য খাওয়া অত্যাবশ্যকীয়। তাই আস্ত শস্যদানা, ফল ও শাকসবজি খেতে হবে।

৯। শর্করা বাদ দেয়া

ডায়েটের আরেকটি ভুল হচ্ছে শর্করা জাতীয় খাবার খাওয়া বাদ দেয়া। এনার্জির জন্য শর্করা জাতীয় খাবার খাওয়া প্রয়োজন। এজন্য আস্ত শস্যদানার তৈরি খাবার যেমন – গমের রুটি, চাপাতি ইত্যাদি খেতে হবে আপনাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here