ট্রাম্প নৈতিকভাবে প্রেসিডেন্টের অযোগ্য “এফবিআইয়ের সাবেক প্রধান কমি”

0
36

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ‘নৈতিকভাবে অযোগ্য প্রেসিডেন্ট’ বলে অভিহিত করেছেন এফবিআইয়ের সাবেক পরিচালক জেমস কমি।

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রাতিষ্ঠানিক ও সাংস্কৃতিক প্রথাগুলোর ‘মারাত্মক ক্ষতি’ করছেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি। তাকে বিপজ্জনক অ্যাখ্যা দিয়ে কমি বলেন, নারীদের মাংসের টুকরা মনে করেন ট্রাম্প।

এবিসি নিউজের ২০/২০ অনুষ্ঠানে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন বহিষ্কৃত এফবিআই পরিচালক কমি। রোববার রাতে ওই সাক্ষাৎকারটি সম্প্রচার করেছে এবিসি নিউজ। খবর বিবিসির।

২০১৬ সালে ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট প্রার্থী থাকার সময় তার প্রচারণাশিবিরের সঙ্গে কথিত রুশ যোগাযোগ ও নির্বাচনে রাশিয়ার সম্ভাব্য হস্তক্ষেপ নিয়ে এফবিআই তদন্তের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন কমি।

তদন্ত চলাকালে গত বছরের মে মাসে কমিকে বরখাস্ত করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করার কথা অস্বীকার করেছে রাশিয়া। ট্রাম্পও রুশ আঁতাতের কথা অস্বীকার করেছেন।

২০১৩ সালে মস্কো সফরে একটি হোটেলে যৌনকর্মীরা একে-অপরের ওপর প্রস্রাব করার সময় ট্রাম্প সেখানে উপস্থিত ছিলেন- এমন দাবি ওঠার পর ট্রাম্প হয়তো সহজেই রাশিয়ার ব্ল্যাক মেইলের শিকার হতে পারেন ভেবে উদ্বিগ্ন ছিলেন বলে দাবি করেন কমি।

এবিসি নিউজের জর্জ স্টিফানোপোলাসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে কমি জানান, ট্রাম্পের মস্কো সফর নিয়ে যে অভিযোগ উঠেছে তার প্রমাণ

রাশিয়ার হাতে থাকার ‘সম্ভাবনা’ আছে। সাক্ষাৎকারে কমি বলেন, ‘একজন ব্যক্তি, যিনি নারীদের বিষয়ে এমনভাবে কথা বলেন এবং ব্যবহার করেন যেন তারা মাংসখণ্ড।’

কমির সাক্ষাৎকারের কয়েক ঘণ্টা আগে ট্রাম্প তার প্রতি অভিযোগ এনে বলেন, ‘কমি অনেক মিথ্যা কথা বলতেন।’ এর জবাবে কমি বলেন, ‘আমি অন্যের কথায় গা ভাসিয়ে বলতে চাই না প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মানসিকভাবে অসম্পূর্ণ বা স্মৃতিভ্রষ্টতা প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছেন।

আমি মনে করি না তিনি স্বাস্থ্যগত দিক থেকে প্রেসিডেন্ট হতে যোগ্য। আমি মনে করি তিনি নৈতিক দিক থেকে প্রেসিডেন্ট হতে অযোগ্য।

তিনি ছোট-বড় সব বিষয়ে সমানে মিথ্যা বলেন এবং আমেরিকার লোকজনকে তা বিশ্বাস করতে বলেন, নৈতিকভাবে তিনি প্রেসিডেন্ট হওয়ার যোগ্য নন।’

বিচারকার্যে বাধা দেয়ার কিছু প্রমাণও আছে বলে দাবি করেন কমি। তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় কথা তাকে সত্যবাদী হতে হবে। ট্রাম্প সেটিরও যোগ্য নন।’

মঙ্গলবার এসব বিষয় নিয়ে কমির লেখা একটি বই প্রকাশ পেতে যাচ্ছে, যার নাম, ‘এ হায়ার লয়ালিটি: ট্রুথ, লাইস অ্যান্ড লিডারশিপ’।

বইয়ের আসন্ন প্রকাশ ও সাক্ষাৎকারকে কেন্দ্র করে কমির বিরুদ্ধে রোববার সকালে বেশকিছু নতুন টুইট করেছেন ট্রাম্প।