ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সামরিক অভ্যুত্থান!

0
18

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করতে যে কোনো সময় দেশটি সামরিক অভ্যুত্থানের চেষ্টা করছেন দেশটির সামরিক বাহিনীর উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তারা।

যুক্তরাষ্ট্রে এমন অভ্যুত্থানের বিষয়ে সতর্ক করেছেন দেশটির সাবেক এক সহকারী মন্ত্রী। ওই মন্ত্রী নিজের ওয়েবসাইটে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেছেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগান আমলের সহকারী অর্থমন্ত্রী পল ক্রেইগ রবার্টস ট্রাম্প প্রশাসনের নিরাপত্তা ব্যবস্থার সর্বোচ্চ পর্যায়ে বিশাল ষড়যন্ত্রের এ আভাস দিয়েছেন।

পল ক্রেইগ রবার্টসের তথ্যে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে সামরিক শক্তির অধীনস্ত গণমাধ্যম ও রাজনীতিকরা নিরাপত্তার জন্য রাশিয়াকে বিশাল হুমকি মনে করে।

কিন্তু বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বাগড়া বসান। তিনি রাশিয়াকে বন্ধু বানাতে চান। কিন্তু দেশটির সামরিক কমপ্লেক্স এবং তার এজেন্টরা এটা হতে দেবে না।

রবার্টসের মতে, রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্প যেন সম্পর্কের উন্নতি না করতে পারেন এজন্য সামরিক বাহিনী ‘রাশিয়াগেট’ নামের একটি নাটক সাজিয়েছিল। পরে তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়। ওই সেনাবাহিনীর পক্ষ সেটি সত্য বলে প্রচার করা হয়েছিল।

রাশিয়া গেট ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালে ডেমোক্র্যাটদের কম্পিউটার হ্যাক করে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের দায়ে ১২ রুশ গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযুক্ত করা হয়।

পল ক্রেইগ রবার্টস বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ভালো করার জন্য ট্রাম্প রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের ঘোষণা দেয়ার পর ডেমোক্র্যাট-রিপাবলিকান নির্বিশেষে বৈঠকে আপত্তি জানিয়েছেন। বলা হয়েছে, এটি রাষ্ট্রদ্রোহের চেয়ে কম কিছু নয়।

রবার্ট বলেন, এ কারণেই পরিস্থিতি সামাল দিতে ফিনল্যান্ড থেকে দেশে ফিরে সামরিক/নিরাপত্তা কমপ্লেক্সের চাপে ট্রাম্প বক্তব্য পাল্টে ফেলেছেন।

তিনি বলেন, তবে শেষ পর্যন্ত ট্রাম্পের শেষরক্ষা নাও হতে পারে। সেনা কমপ্লেক্স তার সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানের পরিকল্পনা করেছে। এই পরিকল্পনার একটি একটি জট খুলছে আর বিদ্রোহ জোরদার হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here