ট্রাম্পের অভিশংসনের জন্য কোটি ডলারের বিজ্ঞাপন প্রচার

0
125

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসনের দাবিতে দেশটির একজন ধনকুবের নিজ উদ্যোগে ১ কোটি ডলার ব্যয়ে ব্যাপক প্রচার শুরু করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বিলিয়নিয়ার টম স্টেয়ার শুক্রবার অনলাইন ও টেলিভিশনে ট্রাম্পের অভিশংসনের পক্ষে বিজ্ঞাপন প্রচার করেন। বিজ্ঞাপনে জনগণের প্রতি তিনি অনুরোধ জানিয়েছেন, তারা যেন কংগ্রেসের কাছে চিঠি লিখে প্রেসিডেন্টের অভিশংসন দাবি করেন। খবর এনডিটিভি ও সিএনএনের।

ক্যালিফোর্নিয়ার এই কোটিপতি ব্যবসায়ী ইউটিউবে এক মিনিটের একটি ভিডিও বিজ্ঞাপন পোস্ট করেন। এতে ট্রাম্পের অভিশংসনের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেছেন টম স্টেয়ার। তার মতে যেসব কারণে ট্রাম্পকে অভিশংসন করা উচিত, তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল- ‘তিনি (ট্রাম্প) আমাদের পরমাণু যুদ্ধের কিনারে এনে দাঁড় করিয়েছেন, এফবিআইয়ের বিচার প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করেছেন, বিদেশি বিনিয়োগের অর্থ গ্রহণ এবং সত্য খবর প্রকাশ করায় সংবাদ প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন।’ এসব কাজে ট্রাম্পকে বাধা না দেয়ায় কংগ্রেস সদস্যদেরও অভিযুক্ত করেছেন টম স্টেয়ার।

তিনি দাবি করেন, ‘কংগ্রেসের লোকজন ও তার নিজস্ব প্রশাসন জানে, এই প্রেসিডেন্ট নিঃসন্দেহে একজন ভয়ঙ্কর মানুষ, যিনি মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন এবং তার হাতে পরমাণু অস্ত্র রয়েছে কিন্তু তারা কিছুই করছে না।’

অনলাইনে যারা বিজ্ঞাপনটি দেখতে পারছেন, তাদের প্রতি স্টেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন, তারা যেন তাদের নিজ নিজ এলাকার কংগ্রেস সদস্যদের প্রতি ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন করার দাবি রেখে চিঠি লেখেন। কংগ্রেসের সদস্যদের প্রতি জনগণকে তিনি বলতে অনুরোধ করেছেন যে, ‘রাজনীতি বন্ধ করে সঠিক কাজটি করার নৈতিক দায়িত্ব রয়েছে তাদের।’ ট্রাম্পের অভিশংসনের দাবিতে অনলাইন ক্যাম্পেইনের জন্য ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছেন ডেমোক্রেটিক সমর্থক ও তহবিলদাতা টম স্টেয়ার। অভিশংসনের পক্ষে স্বাক্ষর সংগ্রহের জন্য নিডটুইমপিচ ডটকম নামে একটি ওয়েবসাইটও খুলেছেন তিনি।

ওয়েবসাইটে টম স্টেয়ার কংগ্রেসের নির্বাচিত সদস্যদের প্রতি একটি খোলা চিঠি লিখেছেন, যাতে তিনি বলেছেন, ‘আমি আপনাদের প্রতি ট্রাম্পকে অভিশংসনের জন্য অবস্থান গ্রহণের অনুরোধ জানাচ্ছি এবং তাকে অফিস থেকে বিতাড়িত করে আপনাদের দায়িত্ব পালনে আহ্বান জানাচ্ছি।’ ৬০ বছর বয়সী টম স্টেয়ার ২০১২ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নির্বাচনী প্রচারের জন্য ৮ কোটি ৭০ লাখ ডলার তহবিল গঠন করেছিলেন। ক্যালিফোর্নিয়ায় গভর্নর হওয়ার জন্য ২০১৮ সালের নির্বাচন ও ২০২০ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়ার বিষয়টি বিবেচনা করছেন স্টেয়ার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here