ট্রাম্পকে ভোট দেওয়ায় ভেঙে গেলো ২২ বছরের সংসার

0
111

092725TRUMP_VOTEআন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ভোট দেওয়ায় ২২ বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি টানলেন গেইল ম্যাকরমিক নামের ৭৩ বছর বয়সী এক মার্কিন নারী। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট মঙ্গলবার, ৭ ফেব্রুয়ারি এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

গেইল ম্যাককরমিক হলেন ক্যালিফোর্নিয়ার অবসরপ্রাপ্ত কারারক্ষী। তার স্বামী গত বছর বন্ধুদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজের সময় ট্রাম্পকে ভোট দেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন বলে জানান। তার মুখে একথা শুনে হতবাক হয়ে যান ম্যাকরমিক! কারণ ট্রাম্পের প্রতি স্বামীর সমর্থনকে বিশ্বাসঘাতকতা হিসেবেই দেখেছেন তিনি।

ম্যাকরমিকের ভাষ্য, ‘ভাবতেই পারিনি সে ট্রাম্পকে ভোট দেবে। মনে হচ্ছিলো নিজেই নিজেকে বোকা বানিয়ে ফেললাম!

এতগুলো বছর এক ছাদের নিচে থেকে এরকম কিছুর সম্মুখীন হইনি। কম বয়সে কখনও মেনে নিতাম না এমন অনেক কিছুই যে বিয়ের পর গ্রহণ করে এসেছি তা উপলব্ধি হলো আমার। তাই সব বিষয়ে আমার দৃষ্টিভঙ্গি উপস্থাপনের সুযোগ তৈরির প্রয়োজনীয়তা থেকে বিয়েবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিতে হলো। ’

আধুনিক যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে আলোচিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের জয়ী হওয়ার কারণে আমেরিকায় ঘরে ঘরে বিভক্তি তৈরি হয়েছে। অনেক মার্কিনির মতে, তাদের আবেগে এতটা ক্ষত কখনও তৈরি হয়নি।

এদিকে ট্রাম্পকে সমর্থন জানানোর কারণে পরিবার ও বন্ধুদের প্রবল নেতিবাচক প্রতিক্রিয়ার মুখে পড়েছেন বলে জানান ওহাইওর ২৫ বছর বয়সী ট্রাকচালক রব ব্রুনেলো। তিনি বলেন, ‘মানুষ বিশ্বাস করেনি হিলারিকে হারাতে পারেন ট্রাম্প। মূলত এ কারণে নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে বেগ পেতে হচ্ছে তাদের। ’

ডোনাল্ড ট্রাম্পের অন্ধ সমর্থক আরও আছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে ঘিরে ফেসবুকে ঝগড়ার কারণে বাল্যবন্ধুর সঙ্গে কথা বলেন না ফিলাডেলফিয়ার ৬৪ বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ উইলিয়াম লোমি। তার ভাষ্য, ‘ট্রাম্পকে সমর্থন জানিয়ে আমার বন্ধুকে কিছু প্রশ্ন করেছিলাম, ওর পছন্দ হয়নি। এ কারণে আমাকে বাজে মেসেজ দিয়েছে। এরপর থেকে আমরা একে অপরের সঙ্গে কথা বলি না। ’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here