জেনে নিন মাড়ির চুলকানি দূর করার ঘরোয়া উপায়

0
306

jpgদাঁতের মাড়ির সমস্যা আপনাকে যন্ত্রণা দেবে এবং আপনার ঘুমেরও  ব্যাঘাত সৃষ্টি করবে। বিভিন্ন কারণে মাড়ির চুলকানির রোগ হতে পারে যেমন- মাড়ির রোগ, অ্যালার্জি, জীবাণু, স্ট্রেস এবং শুষ্ক মুখ। এই সমস্যার প্রতিকারের জন্য কিছু ঘরোয়া উপায় আছে। চলুন তাহলে জেনে নেয়া যাক ঘরোয়া প্রতিকারগুলো সম্পর্কে।

১। ঠান্ডা পানি

ঠান্ডা পানি দিয়ে কুলকুচি করার চেষ্টা করুন। এতে করে মুখের খাদ্যকণা ও জীবাণু দূর হবে যার কারণে চুলকানি হয়। প্রদাহ কমতেও সাহায্য করে ঠান্ডা পানি।

২। আইসকিউব

আক্রান্ত মাড়িতে আইসকিউব লাগান এতে ইনফ্লামেশন দূর হবে এবং মাড়িকে হাইড্রেটেড থাকতে সাহায্য করবে।

৩। লবণ

লবণ পানি দিয়ে গারগল করুন। ১ গ্লাস গরম পানিতে ১ চামচ লবণ মেশান। কয়েক সেকেন্ড যাবত এই পানি দিয়ে গারগল করুন এবং তারপর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৪। হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড

হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড দ্রবণ দিয়ে আপনার মুখ গহ্বর ধুয়ে নিন। এটি প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। আধা কাপ পানিতে ১ চামচ হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড দ্রবণ মিশান এবং এই মিশ্রণটি দিয়ে কুলকুচি করুন। তারপর দ্রবণটি মুখ থেকে ফেলে দিন।

৫। বেকিংসোডা

১ চামচ বেকিংসোডার মধ্যে কয়েকফোটা পানি দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট আক্রান্ত মাড়িতে লাগান। ব্যাকটেরিয়ার ইনফেকশন দূর করতে সাহায্য করবে এই পেস্ট এমনকি মাড়ির চুলকানিও ভালো হতে সাহায্য করবে।

৬। মসলাযুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন

মসলাযুক্ত খাবার, কফি, ধূমপান এবং এসিডিক খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন। কারণ এ ধরণের খাবার প্রদাহ সৃষ্টি করতে পারে এবং মাড়ির চুলকানির সংবেদন বাড়িয়ে দিতে পারে।

৭। অ্যালোভেরা জেল

মুখের প্রদাহ কমতে সাহায্য করে অ্যালোভেরা জেল। মাড়ির ফাটা দ্রুত নিরাময়ের জন্য অ্যালোভেরা জেল আক্রান্ত মাড়িতে লাগাতে পারেন।

৮। স্ট্রেস নিয়ন্ত্রণ করুন

গবেষণায় জানা গেছে যে, সাইকোলজিকেল স্ট্রেস মাড়ির রোগ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। তাই মাড়ির চুলকানি কমানোর জন্যও স্ট্রেস নিয়ন্ত্রণ করা প্রয়োজন। ব্যায়ামের মাধ্যমে স্ট্রেস নিয়ন্ত্রণ করুন।

অনেক ক্ষেত্রেই দাঁতে প্লাক জমলে বা পাথর হলেও মাড়িতে চুলকানির সংবেদন হয়। তাই দাঁত পরিষ্কার রাখুন এবং ডেস্টিস্টের সহায়তায় দাঁতের প্লাক পরিষ্কার করিয়ে নিন। কিন্তু এই পদ্ধতিগুলো অনুসরণের পরেও যদি সমস্যা থেকে যায় তাহলে অবশ্যই ডেন্টিস্টের নিকট যেতে হবে যথাযথ চিকিৎসার জন্য।

LEAVE A REPLY