জার্মানির শপিং মলে ‘গুলি’: ‘অনেক’ নিহতের খবর

0
131

munichআন্তর্জাতিক ডেস্ক: জার্মানির মিউনিখের একটি শপিংমলে বন্দুকধারীদের গুলিতে অনেকেই নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। শুক্রবার সন্ধ্যায় অলিম্পিয়া শপিংমলে এই হামলা হয়। গুলিবর্ষণের পরই পুলিশ ওই শপিং মলে অভিযান চালাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

জার্মানির একটি পত্রিকার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, গুলিতে কমপক্ষে ১৫ জন নিহত হয়েছেন। হামলাকারীরা তিনজন ছিলেন বলেও জানা গেছে।

আপডেট ১.৩৮ মিনিট:  মিউনিখের পুলিশ ছয়জন নিহতের বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন। ফেসবুকে মিউনিখ পুলিশ জানায়, এই হামলায় তিনজন জড়িত রয়েছেন। এই হামলায় আহতের সংখ্যা বেশি হবে বলে মনে করছেন পুলিশ।

আপডেট ১২.৫০ মিনিট: জার্মান টেলিভিশন এনটিভি এ ঘটনায় প্রথমে ১০ জন নিহতের খবর দেয়। পরে বাভারিয়া প্রদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তিনজন নিহতের তথ্য নিশ্চিত করার কথা জানায় তারা।

মিউনিখ পুলিশের এক মুখপাত্র রয়টার্সকে বলেছেন, হামলায় অনেক মানুষ নিহত বা আহত হয়েছেন। একাধিক বন্দুকধারী হামলায় অংশ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।

এ ঘটনার পর মিউনিখে ট্রেন, ট্রাম ও বাসের একাধিক লাইন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে পরিবহন কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

হামলার পর যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জার্মানিতে অবস্থানরত নাগরিকদের মিউনিখের ওই এলাকা এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছে।

German attack

আপডেট ১২.০০ মিনিট: সেখানে গোলাগুলি চলছে জানিয়ে ওই বিপণিবিতানের এক কর্মী টেলিফোনে রয়টার্সকে বলেছেন, ‘ওই এলাকায় তাদের অনেক সহকর্মী এখনও লুকিয়ে আছেন। অনেক গুলি হয়েছে। কতোগুলো গুলি হয়েছে তা আমি বলতে পারছি না, তবে এ সংখ্যা বহু।’

নাম প্রকাশে অস্বীকৃতি জানিয়ে ওই বিপণিবিতান থেকে তিনি বলেন, ‘বাইরে থেকে সবাই দৌঁড়ে স্টোরের ভিতরে আসে এবং আমি শুধু একজনকে নিচে পড়ে থাকতে দেখেছি, যিনি এত মারাত্মক আহত যে, তিনি বেঁচে নেই বলে আমার বিশ্বাস। আমাদের কাছে আর কোনো তথ্য নেই। আমরা জিনিসপত্র সংরক্ষণের কক্ষগুলোর পিছনে আছি। এখনও কোনো পুলিশ আমাদের দিকে আসেনি।’

এখন পর্যন্ত খবরে যেটুকু জানা গেছে তাতে একজন হামলাকারীর কথা বলা হচ্ছে। ঘটনাস্থলের ওপর হেলিকপ্টার উড়তে দেখা যাচ্ছে এবং দোকানের কর্মচারীদের বাইরে বেরতে নিষেধ করা হয়েছে। মিউনিখ পুলিশ মানুষজনকে ওই এলাকার ধারেকাছে না যাবার পরামর্শ দিচ্ছে।

সোমবার বাভারিয়ায় একটি ট্রেনে একজন অভিবাসী পাঁচজনকে ছুরি মারার পর নিরাপত্তা বাহিনীকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে। ওই ঘটনার পর আরো হামলার আশঙ্কা সম্পর্কে কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করা হয়েছিল।

LEAVE A REPLY