জর্ডানে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয শিশু দিবস উদযাপন

0
130

03182017_23_jordan_bd-300x169জর্ডান : জর্ডানে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে জর্ডানস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে এক আলোচনা সভা এবং কেক কাটার আয়োজন করা হয়। দূতাবাসের হল রুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে দিনের শুরুতে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন রাষ্ট্রদূতের জনাব এনায়েত হোসেন ও দূতাবাসের প্রথমা সচিব লুবনা ইয়াসমিন এর নেতৃত্বে দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। জর্ডান আওয়ামী সভাপতি মোঃ জালাল উদ্দিন (বশির), সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান (জামান), সহ-সভাপতি স্বপন দত্ত, সহ-সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম মাস্টার, সহ-সভাপতি মোঃ আলী আজম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল বাসার, সিনিয়র যুগ্ন সম্পাদক শরীফুল ইসলাম বিপ্লব, কিবরিয়া মুন্সি,শাহিন হাসান,আমিনুল ইসলাম,সেলিম আকাশ,নজরুল ইসলাম, মো:আমিনুল,মোতালেব চোকদার সহ সকল নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জর্ডান আওয়ামী লীগ এবং প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিকদের পক্ষ থেকে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় ।বঙ্গবন্ধু ও ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ এ শহীদ হওয়া তাঁর পরিবারের সকল সদস্যবৃন্দের বিদেহী আত্নার শান্তি কামনা করা হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয় ।

জর্ডান দূতাবাস কর্তৃক আয়োজিত আলোচনা সভায় আমন্ত্রিত বক্তারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা তুলে ধরেন। রাষ্ট্রদূত এনায়েত হোসেন তাঁর বক্তৃতায় শিশুদের ভাগ্য উন্নয়নে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বাধীন মুক্তিযুদ্ধোত্তর সরকারের গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন । তিনি বলেন, যে বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশে স্বল্প সময়ে আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন সম্ভব হয়।”

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন বাংলাদেশে জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালিত হওয়ার ব্যাপক তাৎপর্য রয়েছে উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, আগামী দিনের সুনাগরিক হয়ে গড়ে উঠার লক্ষ্যে প্রতিটি শিশুর উচিত বঙ্গবন্ধুর মত বিশ্ব নেতাদের জীবন-যাপন বন সম্পর্কে বলেন।তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশে স্বল্প সময়ে আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন সম্ভব হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন বাংলাদেশে জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালিত হওয়ার ব্যাপক তাৎপর্য রয়েছে উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, আগামী দিনের সুনাগরিক হয়ে গড়ে ওঠার লক্ষ্যে প্রতিটি শিশুর উচিত বঙ্গবন্ধুর মতো বিশ্ব নেতাদের জীবন-যাপন সম্পর্কে জানা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here