চলচ্চিত্রে এখন নায়িকা নাই: কাবিলা

0
233

download (4)বিনোদন ডেস্ক: ১৯৯০ সালে বাংলা ছায়াছবি ‘যন্ত্রনা’ দিয়ে অভিনয় জগতে পা রাখেন কাবিলা। পুরো নাম নজরুল ইসলাম শামীম। প্রথম দিকে তিনি খল নায়ক চরিত্রে অভিনয়করে জনপ্রিয়তা অর্জন করলেও পরবর্তীতে কমেডিয়ান হিসেবে আরও বেশী জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

এক টাকার বউ, সবার উপরে তুমি, এবাদত, আমার প্রাণের প্রিয়া, জন্ম তোমার জন্য, আমাদের ছোট সাহেব, তুমি আমার প্রেম, বাবা আমার বাবা, তুমি স্বপ্ন তুমি সাধনা,তোমাকে বউ বানাবো, প্রেমিক নাম্বার ওয়ান, ফুল অ্যান্ড ফাইনালসহ অনেক সিনেমায় অভিনয় করেছেন এ অভিনেতা।

কাবিলা ‘অন্ধকার’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব-অভিনেতা ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। এ ছাড়া ভালোবাসা আজকাল সিনেমার জন্য ২০১৩ সালে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির পুরস্কার লাভ করেন তিনি।

সম্প্রতি কাবিলার সাথে সাক্ষাত হয় জন্মভূমি বিনোদন প্রতিবেদকের। একান্ত আলাপচারিতায় তুলে ধরেণ নিজের অভিনয় ও চলচ্চিত্রের নানা দিক।

 

জন্মভূমি: আপনি কেমন আছেন? বর্তমান ব্যস্ততা কি?
কাবিলা : আল্লাহুর রহমতে আমি ভালো আছি। আমি অভিনয়ের মানুষ অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত রয়েছি। বর্তমান আমার হাতে ৬টি ছবির কাজ রয়েছে সেগুলো নিয়ে ব্যস্ত আছি।

জন্মভূমি: বর্তমান আমাদের দেশে যে সব সিনেমা তৈরি হচ্ছে তা হুবুহু তামিল, তেলেগু, হিন্দি ছবির কপি। আসলে এটাকে আপনি কি ভাবে দেখবেন?
কাবিলা : একজন শিল্পী চাইনা কোন কপি করা গল্পে অভিনয় করি। আর আমার সব থেকে খারাপ লাগে যখন আমাকে বলা হয় অমুক ছবিটা দেখবেন ওখানে যে চরিত্র আছে ওটাই আপনার চরিত্র। তখন নিজেকে আর শিল্পী মনে হয় না। কপি থাকবে কিন্তু হুবুহু কপি বা তির চারটা ছবির গল্প একত্রে করে ছবি তৈরির পক্ষে আমি না।

জন্মভূমি: বর্তমানে বাংলা সিনেমায় নায়িকার সংকট বলে কি আপনি মনে করেন?
কাবিলা : হ্যাঁ অবশ্যই মনে করি। ৯০দশকের পর থেকে নায়িকা কমতে শুরু করেছে। আর যারা নতুন আসছে এরা তো আর অভিনয় শিখে আসেনাই। আসছে আর যাচ্ছে। অপু বিশ্বাসকে নিয়ে ভরসিা ছিলো সেও কোন এক কারণে অনেকটা দুরে সরে গেছেন। এখন তো চলচ্চিত্রে নায়িকা দেখছি না। মাহি বিয়ে করে ফেললো আর তেমন কাউকে দেখছি না।

জন্মভূমি: অভিনয়ে যারা নতুন আসছেন তাদের উদ্দেশ্যে কি বলবেন?
কাবিলা : আমি শুধু বলেত চাই তোমরা অভিনয়ের আসো ব্যবসার জন্য না। আর এখন তো অনেককে দেখছি নিজের টাকা আছে পরিচালককে দিয়ে একটা ছবি বানিয়ে নিজেকে হিরো বানাচ্ছে। এটা বন্ধ করতে হবে। প্রকৃত অভিনেতাকে তুলে আনতে হবে। না এক সময় আমাদের এই চলচ্চিত্র থাকবে না।

জন্মভূমি: আপনার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রপ্ত ছবি কি ছিলো?
কাবিলা : ‘অন্ধকার’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব-অভিনেতা ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছি।

জন্মভূমি: সর্বশেষ আপনার ভক্ত ও সিনেমা প্রিয় মানুষদের কি বলতে চান?
কাবিলা : আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন আপনাদের সামনে আমার অভিনয় নিয়ে বার বার ফিরে আসতে পারি। আপনারা বাংলা ছবি দেখুন হলে গিয়ে ছবি দেখুন।

LEAVE A REPLY